স্বপ্নের_crush ? (in reality) Part-7 +8

0
3424

স্বপ্নের_crush ? (in reality)
Part-7 +8
writer : Borno ☺
ছদ্দনামঃ Samiya Arohi
.

আহানঃ thanks year ? [ মিস আরোহি কালকে থেকে দেখো আমি কি করি? সরি জান তোমার সাথে একটু মজা করবো]
,
Next day___
কলেজে,
স্যার আমাদের সবাইকে একটা এসাইনমেন্ট দিলেন,, আরোহিঃ (আমারটা অহির সাথে শেয়ার করার কথা ছিলো কিন্তু অহি নিহাকে হেল্প করছে ?? কিন্তু আমি একা এটা কমপ্লিট করতে পারবো না।। এখন কি করি? ওকে একবার বলে দেখবো? বলেই দেখি)
…অহি নিহার সাথে ছিলো,
আরোহিঃ হাই অহি ?
আহানঃ হ্যাঁ বলো
আরোহি : আজকে একটু ফ্রি আছো?
আহানঃ কেন?
আরোহিঃ actually আমি একা এসাইনমেন্টটা কমপ্লিট করতে পারবো না
আহানঃ তো?
আরোহিঃ তুমি কি আমাকে একটু হেল্প করতে পারবে?
আহানঃ (একটু ভাব নেওয়া যাক?) সরি, আমি একটু বিজি আছি।
আরোহিঃ কি কাজে??
আহানঃ আজকে আমি আর নিহা বাহিরে ঘুরতে যাব, এটাকে ডেটও বলতে পারো ?
নিহাঃ ওহ রিয়েলি জান? ???
আহানঃ হ্যাঁ সোনা
আরোহিঃ ( কালকে আমাকে প্রোপোজ করলো আর আজকেই এর সাথে ? হুহ সব ছেলেরা এক৷ পঁচা ? শুধু আমার আহান ভালো ?)
আহানঃ কি হলো? এভাবে দাড়িয়ে আছো কেন? আচ্ছা এখন আসি টা টা ( বলেই নিহাকে জড়িয়ে বেরিয়ে গেলাম)
আরোহিঃ ?? ( এত চিপকে থাকার কি আছে?? ?? অন্যদিন তো নিহাকে সহ্য করতে পারতো না, আজ কি হলো?)

এদিকে আহান শুধু নিহাকে নিয়ে বার বার আরোহির সামনে দিয়ে ঘুরছে, আরোহি যেদিকেই যাক, আহান ওখানেই নিহাকে নিয়ে হাজির ? আর নিহার হাটতে হাটতে পায়ের অবস্থা খারাপ। একে হাই হিল, তার উপর আহান ওকে নিয়ে এক প্রকার দৌড়াচ্ছে
নিহাঃ আহান
আহানঃ আহান না অহি বলে ডাকো
নিহাঃ ওকে অহি, তুমি এভাবে দৌড়াচ্ছো কেন?আমার পায়ের অবস্থা খারাপ হয়ে গেছে?
আহানঃ ( ওয়াহ!! মেঘ না চাইতেই জল!!) ওহ শিট। তাহলে তো আজকে আর ঘুরতে যেতে পারবো না। আচ্ছা থাক তুমি রেস্ট কর। আমরা পরে একদিন ঘুরবো। নয়তো তোমার অনেক কষ্ট হবে
নিহাঃ oww so sweet of you baby ?
আহানঃ ??

আরোহিঃ আজ অহি সব সময় নিহার সাথে ঘুরছে কেন? ? আজ আমাকে পাত্তাও দিচ্ছে না ? মনে হয় রাগ করেছে,, অহিকে গিয়েই জিজ্ঞেস করি,,,
আহানের কাছে গিয়ে,
আরোহিঃ অহি
আহানঃ হুম
আরোহিঃ তুমি কি আমার উপর রাগ করেছো?
আহানঃ না তো কেন?
আরোহীঃ এমনি,, আজকে আমাকে পাত্তাও দিচ্ছো না, আর নিহাকে না তোমার সহ্য হয় না তবুও ওর সাথে?
আহানঃ আসলে তুমি আমাকে রিজেক্ট করার পর আমি রিয়েলাইজ করেছি নিহা আমাকে অনেক ভালোবাসে, তাই ওকে একটা সুযোগ দিচ্ছি
আরোহিঃ (এভাবে চিপকে চিপকে সুযোগ দেওয়া হচ্ছে না ফায়দা নেওয়া ??) ভালো ?
আহানঃ কেন? তোমার কি জেলাস ফিল হচ্ছে?
আরোহিঃ আজব তো! আমা.. আমার কেন জেলাস ফিল হবে?
আহানঃ না কিছু না,, ( বলেই শিস বাজাতে বাজাতে চলে গেলাম)
আরোহিঃ ও কি মিন করলো? ???
।।।
কলেজে এনাউন্সমেন্ট হলো এনুয়াল ফাংশনের জন্য,, যারা যারা অংশগ্রহণ করতে চায় তারা নাম দিবে,
মিতুঃ আরোহি চল না, নাম দিই
নিশাঃ হ্যা চল না,, আমরা তো স্কুলে একসাথে কত পারফর্ম করেছি
আরোহিঃ ওকে……….. আমরা নাম দিতে গেলাম, দেখলাম অহি আর নিহা couple dance করবে ?? হুহ আমি এত ভাবছি কেন? whatever
আহানঃ ( নাম দিতে চাইনি কিন্তু নিহাটা জোর করে দিয়ে দিলো)
..
আরোহিঃ বাসায় যাব জন্য বের হচ্ছি হঠাৎ নিহা সামনে আসায় পড়ে যেতে নিলাম আর কেউ ধরে নিলো
সায়রঃ ঠিক আছো তুমি?
আরোহিঃ হ্যাঁ থ্যাংকস
সায়রঃ নো নিড
নিহাঃ হাই আরোহিইই
আরোহিঃ হাই
নিহাঃ তা কি খবর? খারাপ লাগছে না কি?
আরোহিঃ মানে? আমার কেন খারাপ লাগবে?
নিহাঃ তোমার কাছে থেকে আহ সরি অহি কে কেড়ে নিলাম যে
আরোহিঃ না,, আমার কোনো খারাপ লাগেনি
আহানঃ ওর কোনো কিছুতে খারাপ লাগে না। বাদ দাও তুমি, চল বাসায় যাব ( বলে নিহার হাত ধরে টেনে নিয়ে আসলাম) নিহা তুমি ওকে ধাক্কা কেন দিলে?
নিহাঃ আমি কক.. কখন ধাক্কা দিলাম?
আহানঃ আমি দেখিছি
নিহাঃ ওটা মিসটেক ছিলো। তবুও সরি
আহানঃ তোমার জন্য যেন আরোহিকে কষ্ট না পেতে হয়,, নাহলে আমার থেকে খারাপ আর কেউ হবে না ( বলেই চলে আসলাম)
নিহাঃ ??? আরোহি!!! তোমার জন্য আমি অনেকবার অপমানিত হয়েছি। এবার তোমার এমন হাল করবো যে তুমি সারা জীবন মনে রাখবে ?
– শুধু আরোহিকে আমার করে দাও। তাহলেই তোমার রাস্তা ক্লিয়ার হয়ে যাবে ?
নিহাঃ তুমি?
সায়রঃ হ্যাঁ আমি
নিহাঃ ওকে,, তাহলে আজ থেকে পার্টনার?
সায়রঃ ডিল
.
_____ এদিকে অর্ণব বাসায় এসে অরনির কথায় ভাবছে
অর্ণবঃ ?????
অর্ণবের মাঃ মেয়েটা কিন্তু অনেক মিষ্টি দেখতে
অর্ণবঃ হ্যাঁ ?
অর্ণবের মাঃ পছন্দ হয়েছে?
অর্ণবঃ ( আমি কার সাথে কথা বলছি?? ?পেছনে ঘুরে দেখি মা) ওহ মা! না না কিসের মেয়ে কোন মেয়ে? ?
অর্ণবের মাঃ বাহ বাহ এতক্ষণ তো এতো মগ্ন ছিলে যে সব বলেই ফেলেছ, বাই দ্যা ওয়ে আমি কিন্তু তোদের সব কিছুই দেখেছি বারান্দা থেকে
অর্ণবঃ??
অর্ণবের মাঃ মেয়েটা দেখতে সুন্দর,, দেখেতো ছোট বাচ্চা মনে হয়
অর্ণবঃ ক্লাস 10 এ পড়ে
অর্ণবের মাঃ ওহ, তা আগে থেকে চিনিস?
অর্ণবঃ নাহ, এখানে কাজে এসেছিলো
অর্ণবের মাঃ তা কি কাজে এসেছিলো তা বলেছে?
অর্ণবঃ না,, হয়তো কোনো ফ্রেন্ডের বাসায় এসেছিলো
অর্ণবের মাঃ মাঝে মাঝে তো আমার তোর উপর ডাউট হয়, তুই আমার ছেলে কি না,, আমার ছেলে হয়ে তুই এতো বোকা কেন?
অর্ণবঃ? মানে?
অর্ণবের মাঃ ও তোর জন্য এসেছিলো
অর্ণবঃ মানে??
অর্ণবের মাঃ হুম, আমি দেখেছি ও অনেক্ষণ ধরে গাছের পাশে অপেক্ষা করছিলো, আর যখনই তুই বের হলি তখনই তোর গাড়ির সামনে চলে এসেছিলো,
অর্ণবঃ কিন্তু ও তো সত্যি পায়ে ব্যাথা পেয়েছিলো
অর্ণবের মাঃ তা পেতেই পারে কোনোভাবে,, তবে আসল কারণটা যে তুই তা আমি বুঝে গেছি,,
অর্ণবঃ ( মনে মনে) কিন্তু আমার জন্য কেন আসবে? তবে হ্যা ওর প্রশ্ন গুলো এবার আমাকে ভাবাচ্ছে ?
অর্ণবের মাঃ আমার কিন্তু বৌমা পছন্দ হয়েছে, ? বাকিটা তোর ইচ্ছা ?
অর্ণবঃ ? ( হেসে দিলাম) দেখা যাক কি হয় ?
(মা চলে গেলেন,,,)
অর্ণব সারা রাত অরনির কথা মনে করে ঘুমাতে পারে নি…? সেই গাল, সেই চোখ, সেই চিল্লানো, আর সেই দৌড় ??
অর্ণবঃ হুম সো মিস অরনি,, এবার তোমার সাথে তো আমায় দেখা করতেই হবে।। তুমি যে আমার ঘুম কেড়ে নিয়েছো ?
.
to be continued…… ?
.স্বপ্নের_crush ? (in reality)
Part-8
writer : Borno ☺
ছদ্দনামঃ Samiya Arohi
.
অর্ণবঃ হুম সো মিস অরনি,, এবার তোমার সাথে তো আমায় দেখা করতেই হবে।। তুমি যে আমার ঘুম কেড়ে নিয়েছো ?
.
এদিকে,
আরোহিঃ ( মনে মনে) নিহার সাথে এতো কি হ্যাঁ? এতোদিন তো আমার সাথে ভালোভাবেই কথা বলতি,, আর আজ নিহাকে পেয়ে আমাকে সোজা ইগনোর!! ? বেটা বজ্জাত, কাল আমাকে প্রোপোজ করলো আর আজ নিহাকে গার্লফ্রেন্ড বানিয়ে নিলো ?? বেটা আফ্রিকার উগান্ডা, আবার ডেটিং-এ যায় ? আবার নাকি couple dance করবে!! করাচ্ছি ড্যান্স ?? কালকে দেখে নিয়ো আমি কি করি ?
,
_____ পরের দিন কলেজে,
আরোহিঃ ( অহি কই!!?? সকাল থেকে খুঁজেই পাচ্ছি না ? ঐ তো নিহা ওকেই জিজ্ঞেস করি) হাই নিহা
নিহাঃ হাই (with lots of attitudes)
আরোহিঃ ( হুহ ঢং দেখলে বাঁচি না ?) অহিকে দেখেছো?
নিহাঃ ওহ অহি!! ও আমার জন্য কোল্ড ড্রিংকস নিয়ে আসতে গেছে,,, ( ডাহা মিথ্যা কথা)
আরোহিঃ ( ? বিশ্বাস হয় না) আচ্ছা ওকে,, [ চলে আসলাম,, এই নিহার উপর বিশ্বাস নাই, যা মিথ্যুক ]

ড্যান্স প্রাকটিস ক্লাসে,
আরোহিঃ ( হঠাৎ দেখলাম মিতু পাউডার মেখে, চুল ঠিক করে রেডি হচ্ছে ??)
নিশাঃ কি ব্যাপার আজকে হঠাৎ এত সাজগোজ?
নিশাঃ দোস্ত ওয়েট, আমি আসছি
১০ মিনিট পর,
আরোহিঃ নিশা, মিতু কই গেল রে? এখনও আসে না
নিশাঃ আমিও তো দেখছি না
,,, একটুপর মিতু খোঁড়াতে খোঁড়াতে এলো, গায়ে ধুলা লেগে আছে, চুল গুলো কাকের বাসার মত ?
আরোহিঃ এ কি রেএএএ গেলি বিন্দাস, আর এলি ফইন্নির মতো ??
আরোহি ও নিশাঃ ????
মিতুঃ মার খাবি কিন্তু
নিশাঃ আচ্ছা সরি, এখন বল তো কিভাবে কি হলো?
মিতুঃ সিরাজের ( মিতুর বয়ফ্রেন্ড) সাথে দেখা করতে রাস্তার ওপাশে গেছিলাম, আসার সময় কুকুরে তাড়া করছে, আমি দৌড়াতে গিয়ে পড়ে গেছি আর পায়ে লেগেছে
আরোহিঃ ??? বয়ফ্রেন্ড সে মিলনে গ্যায়া অউর কুত্তানে কিস কার দিয়া
নিশাঃ ??????
মিতুঃ কুকুরটা আমার পিছু নেইনি
আরোহি ও নিশাঃ মানে? তাহলে তুই দৌড়ালি ক্যান?
মিতুঃ আরে আমি তো ভেবেছিলাম কুকুরটা আমাকে ধরার জন্য আসছে তাই আমি দৌড় দিছি কিন্তু পরে দেখলাম কুকুরটা একটা বল নেওয়ার জন্য ওদিকে দৌড়াচ্ছিলো ?
আরোহি ও নিশাঃ ???????? [ আমরা হাসতে হাসতে প্রায় গড়াগড়ি খাচ্ছি]

আরোহিঃ তোর তো পায়ে লেগেছে তাহলে এখন নাচবি কিভাবে?
মিতুঃ সরি রে, আমি পারবো না। তোরা 2 জন কর
নিশাঃ এটা কি হলো?
আরোহিঃ নাচলে 3 জনই নাচব নয়তো কেউ না
মিতুঃ না না তোরা নাচ প্লিজ প্লিজ প্লিজ
নিশাঃ ওকে
আরোহিঃ (আমি আর নিশা প্রাকটিস করছি হঠাৎ দেখলাম অহি আর নিহা এলো) হুহ, নিহার ঢং দেখে মনে হচ্ছে নেচে একদম উল্টায় দিবে ?
নিশাঃ তুই কেন ভাবছিস ওদের নিয়ে?
আরোহিঃ আ..আ..আমি কোথাই ভাবলাম। নাচ তো
.
আহানঃ ড্যান্স ক্লাসে এসে দেখলাম আরোহি নাচছে। বাহ ভালো নাচে তো মেয়েটা ?

নিশাঃ আহ
আরোহিঃ (ড্যান্স করছিলাম, নিশা নাচতে গিয়ে হঠাৎ পায়ে ব্যাথা পেল) কি হলো? কি হয়েছে?
নিশাঃ মনে হয় মোচ লেগেছে। পা মুভ করতে পারছিনা রে
আরোহিঃ এখন কি হবে? ( এতক্ষণে সবাই চলে এসেছে আমাদের কাছে, আমি ম্যামের কাছে গেলাম) ম্যাম আমাদের ড্যান্সটা ক্যান্সেল করে দিন। আমাদের 2 জনই ইনজুরিড। তাই আমি আর একা নাচতে পারব না
ম্যামঃ এমনিতেই এবার পারটিসিপেটর কম। আচ্ছা ঠিক আছে আমি দেখি কি করা যায়
.
আহানঃ আমি আর নিহা নাচছিলাম। কিন্তু নিহা কিছুতেই আমার সাথে মিলাতে পারছে না। উফফ বিরক্তিকর,,,, হঠাৎ ম্যাম এলো
ম্যামঃ আহান,
আহানঃ জি ম্যাম
ম্যামঃ তোমার পার্টনার তো তোমার সাথে ম্যাচ করতে পারছে না। তুমি যদি চাও পার্টনার চেঞ্জ করতে পার। এতে তোমার পার্ফরমেন্স ভালো হবে
আহানঃ ম্যাম আমার কাছে তো কোনো সেকেন্ড অপশন নেই
ম্যামঃ তুমি যদি চাও, আরোহি তোমার পার্টনার হবে। ওর ফ্রেন্ড গুলো ড্যান্স করতে পারবে না তাই
আহানঃ (মেঘ না চাইতেই জল!?) ওকে ম্যাম আমি রাজি
নিহাঃ হোয়াট আহান!! আমি তো তোমার পার্টনার।
আহানঃ কিন্তু তুমিই দেখ আমাদের নাচ একদম মিলছে না। ভালো না নাচলে তো কলেজের রেপুটেশন নষ্ট হবে
নিহাঃ whatever
আহানঃ (মনে মনে) এই মেয়েরে তুলে আছাড় দিতে ইচ্ছা করছে, আমরা আবার ড্যান্স শুরু করলাম।
.
আরোহিঃ (এদিকে আমি ড্যান্স করতে পারছি না আর ঐ দিকে ওরা নাচছে!! ? দাড়া দেখাচ্ছি মজা ?? দেখলাম মিতুর পাউডারটা এখনও বাহিরে আছে.. পেয়েছিইই আইডিয়া ? আমি কাগজে একটু পাউডার ঢেলে নিয়ে অহি যেখানে প্রাকটিস করছে ওখানে গিয়ে পাউডার ফেলে দিলাম… হিহি এইবার দেখো সোনা ড্যান্স করতে কত মজা ??)
____একটুপর,
-আহহহহহহ
আরোহিঃ (মনে হলো কোনো মেয়ের চিৎকার শুনলাম। পেছনে ঘুরে দেখি নিহা ধপাস ?? আমি তো অহিকে ফেলার জন্য পাউডার ফেলেছিলাম কিন্তু এখন তো দেখি নিহা ধপাস ?? যাক যেকোন একজন পড়লেই তো নাচ শেষ, আর তাছাড়া ভালো হয়েছে নিহা যেমন attitude দেখায় তাতে একটু পানিসমেন্ট দরকার ছিলো ???) ম্যাম নিহার দিকে ছুটে গেলো
ম্যামঃ নিহা, কি হয়েছে? আর ইউ অলরাইট?
নিহাঃ নো ম্যাম, স্লিপ খেয়ে পড়ে গেছি
আহানঃ এজন্যই কম লাফাতে বলেছিলাম, কিন্তু তুমি তো নাচছো কম লাফাচ্ছো বেশি
আরোহিঃ ( ইইইহহহহ কত্তত্ত চিন্তা ওর জন্য ??)
নিহাঃ না আমি এমনি এমনি পড়িনি,, মনে হলো এখানে কিছু পড়ে আছে। আমি তার উপর স্লিপ খেয়েছি
ম্যামঃ এখানে তো পাউডার পড়ে আছে। পাউডার আসলো কোথা থেকে
আরোহিঃ ( মিতু তাড়াতাড়ি নিজের পাউডার লুকালো) ম্যাম,, মনে হয় নিহা মেকআপ করার সময় পাউডার পড়েছে। নিহা এট লিস্ট ড্যান্স ক্লাসে মেকআপ কম করে এসো?
(সবাই আরোহির কথা শুনে মুখ টিপে হাসছে)
আহানঃ (মনে মনে) নির্ঘাত এই মেয়েই কিছু করেছে ?
নিহাঃ (মনে মনে) মনে হচ্ছে সব আরোহি করেছে। আরোহি অনেক বড় ভুল করছো। তোমাকে এর ফল তো ভোগ করতেই হবে ?
.
ম্যামঃ নিহা তুমি কি পার্ফরম করতে পারবে?
নিহাঃ নো ম্যাম। সম্ভব না
আরোহিঃ ওহ নো,, তাহলে তো তোমাদেরও ড্যান্স ক্যান্সেল
ম্যামঃ না না তাহলে তো অনেক সমস্যা। এমনিতে কম ড্যান্সার। তাহলে এক কাজ কর, আরোহি তুমি ওর ( আহানের) সাথে ডুয়েট ড্যান্স কর
আরোহিঃ ???? ( মনে হয় আমি নিজের পায়ে নিজেই কুড়াল মেরেছি ?)
আহানঃ (যাক বাচা গেলো?)
নিহাঃ ( ?????)
.
_______________________
অরনি কোচিং-এ বসে ভাবছে,
অরনিঃ ( আজ আমি কিভাবে অর্ণবের সামনে যাব? কালকে কি আমার ওকে কিস করাটা খুব দরকার ছিলো। ইসসস অরনি তুই যে কেন মাঝে মাঝে এমন কাজ করে ফেলিস!! ? এই জন্মে আর তো মনে হয় না ওর সামনে যেতে পারবো। তাহলে আমার প্লান কিভাবে সাকসাসফুল করব? ?)
.
অর্ণবঃ (কলেজে বসে ভাবছে) আচ্ছা মায়ের কথা যদি ঠিক হতো তাহলে তো আজ ও আসতো। তাহলে এলো না কেন? মায়ের কথা তো কখনো ভুল হয় না। তাহলে? তাহলে কি কালকের কিসটার জন্য লজ্জায় আসেনি? হতেও পারে?। নাকি আবার অসুস্থ হলো ? আমি কি একবার ওর কোচিং-এর সামনে যাবো? গিয়ে না হয় দেখে আসি ?? যদি কিছু ভাবে? ভাবলে ভাববে,, আমিও না হয় একটা এক্সকিউজ বানিয়ে বলে দিবো ?
অর্ণব গাড়ি নিয়ে অরনির কোচিং – এর সামনে গেলো।
অর্ণবঃ যাক ঠিক সময়ে এসেছি। এখন কোচিং ছুটি হবে ?….. ঐ তো অরনি। যাক ঠিক আছে তাহলে ☺
অরনিঃ কোচিং ছুটি হয়ে গেলো। আমি বের হয়ে হাটছিলাম। কিন্তু মনে হলো কেউ আমার দিকে তাকিয়ে আছে। আমি পিছনে ঘুরেই দেখলাম অর্ণব আমার দিকে তাকিয়ে আছে ???? ( ডিয়ার আল্লাহ, আমি কি পাগল-টাগল হয়ে গেলাম নাকি??? ?? অর্ণব এখানে আসবে কিভাবে??? আর ও কেনই বা আসবে? আমার মাথায় কিছুই ঢুকছে না। ও কি আমার জন্য এসেছে? কিন্তু এটা কিভাবে সম্ভব?) অর্ণব আমার দিকে হাত নেড়ে হাই দিলো ?
.
অর্ণবঃ (দেখলাম ও আমার দিকে শকড হয়ে তাকিয়ে আছে? তাই আমি হাত নেড়ে হাই দিলাম।)
অরনিঃ (ওর কাছে গিয়ে জিজ্ঞেস করলাম) আপনি? এখানে?
অর্ণবঃকেন? আসতে পারি না?
অরনিঃ না আমি তা বলিনি । কোন কাজে এসেছিলেন?
অর্ণবঃ হ্যাঁ, পারসোনাল কাজে। তাই ভাবলাম তোমার সাথে দেখা করে যাই
অরনিঃ ???? ওহ
অর্ণবঃ হুম।
অরনিঃ (পেছনে থেকে আমার ফ্রেন্ডরা ডাকলো) আচ্ছা আমি আসি। আমার ফ্রেন্ডরা ডাকছে। বাসায় যেতে হবে
অর্ণবঃ ( আমিই তো পৌঁছে দিতাম) ওকে ☺ বাই
অরনিঃ বাই ?( ইস আরও কিছুক্ষণ যদি কথা বলতে পারতাম!! এই ডেভিল ফ্রেন্ড গুলা অলয়েজ রং টাইমে এনট্রি নেয় ?????)
অর্ণবঃ ওর হাসিটা দেখে মনটা একদম ভালো হয়ে গেলো ☺ অরনি চলে গেলো। আর আমিও চলে আসলাম)
.
নিহাঃ তাহলে আমরা যেমন প্লান করলাম ঠিক তেমনই হওয়া চাই ?
সায়রঃ Don’t worry। হয়ে যাবে। এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা ?
নিহাঃ আরোহি,,, এনুয়্যাল ফাংশনে কি হবে তুমি ভাবতেও পারছো না

to be continued…….. ?