গ্রামের পিচ্চি বউ পর্ব :- ০১ এবং ০২

0
1827

গল্প :- গ্রামের পিচ্চি বউ
পর্ব :- ০১ এবং ০২
লেখিকা :- তানছিয়া বাবুনি
.
.
-:”আমি আমার পিচ্চি বউ টার গল্প বলবো আজ…
আমি বাবা মায়ের সাথে ঢাকা থাকি__
আমি বাবা মায়ের একমাত্র সন্তান__
আমি যা চেয়েছি তাই পেয়েছি .. আমার বাবা মা কখনো আমার কোন চাওয়া অপূর্ণ রাখেননি..
আমি পড়ালেখার পাশাপাশি আব্বুর অফিসে বসি…
আব্বুর যথেষ্ট বয়েস হয়েছে ওনার এখন রেস্ট নেয়ার প্রয়োজন..তা ছাড়া আব্বুর হার্ট অ্যাটাক হয়েছে একবার..
তাই আব্বুর অফিসের সব কাজ আমাকেই একা সামাল দিতে হয়..
বেশ ভালো ই দিন গুলো কাটছিল..
আমি হঠাৎ একদিন রাতে অফিস থেকে কাজ শেষে বাসায় আসলাম..
আম্মু আমার খাবার দিচ্ছে টেবিলে .. আব্বু সুফায় বসে টিভি দেখছিল..
আমি খাচ্ছি ..
আম্মু:বাবা রাফসান, তকে একটা কথা বলি__?
আমি: খেতে খেতে উত্তর দিলাম ..হুমমম আম্মু বল কি বলবা…
আম্মু :কাল আমরা সিলেট যাচ্ছি..তুই ও আমাদের সাথে যাবি..
আমি:আম্মু আমি কি করবো ওখানে
গিয়ে ..তুমরা যাও ..তা ছাড়া অফিসের কত কাজ আছে..
আম্মু: কিছু হবে না .. মাত্র তো কয়েক টা দিন থাকবো..
আমি:তা কিসের জন্য যাবো সেটা তো বললে না..
আম্মু:তর আব্বুর বন্ধুর না কি মেয়ের বিয়ে তাই আমাদের যেতে হবে__তা ছাড়া বেচারা এত করে বলছে. না গেলে কি ভাববে বল__?
আমি: ঠিক আছে .. যাবো..
আম্মু:(আব্বুর দিকে তাকিয়ে মুচকি হেঁসে)বলল ঠিক আছে তাহলে কাল আমরা সবাই যাচ্ছি…
আমি খাওয়া শেষ করে আমার রুমে গিয়ে শুয়ে পড়লাম..
আর আম্মু কে বললাম কাপড় চোপড় গোছিয়ে রাখতে…
তারপর এক ঘুমেই রাত পার হয়ে গেল..
ঘুম থেকে উঠে,ফ্রেশ হয়ে নাস্তা শেষ করে..রেডি হয়ে গেলাম..
আম্মু আব্বু ও রেডি ..
তারপর গাড়িতে জিনিস পত্র তুলে ফেললাম..
আমাদের নিজেদের ক্যার টা নিয়ে ই রওনা হলাম..
আমি নিজেই ড্রাইভ করছি .. পিছনে আম্মু আব্বু বসে আছে..
আব্বু আম্মুর সাথে গল্প করতে করতে আমি ড্রাইভিং করছি..
আমরা সকাল ৮টায় বের হয়েছিলাম ..ঐখানে পৌঁছাতে পৌঁছাতে বিকেল ৪টা হয়ে গেছে..
ঐখানে বড় একটা বাড়ির সামনে গাড়ি টা থামালাম..
আমি ছোট বেলা এসেছি অনেক আগে.. আগের পরিবেশ এখন আর নেই অনেক পরিবর্তন হয়েছে গ্রামের , রাস্তাঘাটের , বাড়ির ও ..
গাড়ি থেকে নেমে আব্বু আম্মু কে নিয়ে বাড়ির উঠোনে পা রাখতেই.. হৈচৈ শুরু হয়ে গেল..
আব্বুর বন্ধু ও ওনার বউ আমাদের এগিয়ে নিয়ে যেতে আসলেন__
আমি ওনাদের সালাম করলাম..
আব্বুর বন্ধু বললেন বাহ তর ছেলে তো সত্যি ই ওনেক বড় হয়ে গেছে..
আব্বু হেঁসে বললেন হ্যাঁ..
আন্টি বললেন ওনাদের কি এখানে ই দ্বার করিয়ে রাখবেন ..? ভীতরে নিতে হবে না__?
মজার ব্যাপার হচ্ছে আমি ওনাদের কথা শুনে অনেক টা ই বোকা বনে গেলাম__
কারণ ওনারা সিলেট এর আঞ্চলিক ভাষায় কথা বলছিলেন..
আমাদের একটা রুমে নিয়ে বসানো হলো..
দেখে তো মনে হচ্ছে এই টা সিটিং..
যাই হোক ঘর টা খুব পরিপাটি.. ভালো লাগছিলো দেখে..
.
.
#Part :- 02
.
.
-: “ততক্ষণে আমাদের জন্য অনেক রকমের নাস্তা দেওয়া হয়েছে____
আম্মু আব্বু, আমি নাস্তা সেরে নিলাম__
আম্মু আর আব্বু কে একটা রুম দেওয়া হয়..
আমাকে ও একটা রুম দেওয়া হল থাকার জন্য..
আমি রুমে ঢুকলাম ঢুকেই দেখি অনেক সুন্দর করে সাজানো হয়েছে ঘরটা..
আমি ওয়াশরুমে গিয়ে হাত মুখ ধুয়ে আসলাম.. রুমে এসে আমি শুয়ে পরলাম..
শুয়ে শুয়ে ফোন টিপছিলাম..
তখন ই একটা ছেলে রুমে ঢুকলো (১০বছরের মতো বয়েস হবে)আমি প্রশ্নবিদ্ধ চোখে ছেলেটির দিকে তাকালাম…
ছেলে: দুলাভাই আপনে ফোন টিপইন কেন আমরার লগে গল্প করতা তে…?
আমি: ছেলে টির দিকে হা করে তাকিয়ে রইলাম ওর কথা শুনে..(আমার মনে শুধু ঘুরপাক খাচ্ছে ও কেন আমাকে দুলাভাই বলছে…?আমি ওর কোন জন্মের দুলাভাই__? )
ছেলে: দুলাভাই কিতা হইল কিতা দেখইন এলা মাতোইন না কেনে…?
আমি: ছেলেটির কথায় ঘুর কাটলো .. বললাম তুমার নাম কি ..?আর আমাকে দুলাভাই বলছ কেন..?
ছেলে:আমি রাফি .. আপনে আমার দুলাভাই হইবা তে দুলাভাই ডাকতাম না তে কিতা ডাকতাম…?
আমি:(আমি ওর কথা পুরোপুরি না বুঝলেও কিছু টা বুঝতে পারলাম..) আচ্ছা রাফি আমি কি ভাবে তুমার দুলাভাই হবো…?
রাফি:আ রে আপনার লগে আমার বইনর বিয়া হইবো তো..আপনে জানইন না নি…?
আমি:আমি ওর কথা শুনে এক লাফে ঘুম থেকে উঠে বসে গেলাম..(মনে মনে ভাবছি এসব কি হচ্ছে … আমার মাথায় তো কিছুই ঢুকছে না..)
রাফি: দুলাভাই কিতা হইল মাতইন না কেনে..?
আমি: তখন ও ঘুরের মধ্যে রয়েছি … নানা প্রশ্ন মাথায় আসতাছে…
রাফি:(আমি চুপ করে বসে আছি দেখে চলে গেল)বলল … আইচ্ছা দুলাভাই আপনে ঘুমাইন আমি গেলাম…
আমি: ভাবছি এসব কি হচ্ছে আমার সাথে ….?(ভাবতে ভাবতে কখন যে ঘুমিয়ে পড়লাম বুঝতে ই পারিনি)
হঠাৎ ঘুম ভেঙে গেলো আম্মুর ডাকে….
আম্মুর কথা শুনে তো আমি অবাক হয়ে গেলাম….
আম্মু: তুই এখন ও ঘুমিয়ে আছিস তারাতাড়ি রেডি হয়ে নে সবাই অপেক্ষা করছে তর জন্য….
আমি :কি বলছো আম্মু এসব কিছুই তো আমার মাথায় ঢুকলো না…সবাই কেন আমার জন্য অপেক্ষা করছে…?
আম্মু :এই নে রেডি হয়ে নিচে নেমে আয় সব বুঝতে পারবে…(বলে ই একটা পাঞ্জাবি হাতে ধরিয়ে দিয়ে চলে গেল)
আমি: অবাক হয়ে তাকিয়ে রইলাম আম্মুর চলে যাওয়ার দিকে….
কি আর করা আমি পাঞ্জাবি টা হাতে নিয়ে দেখি আরেররররর____এ কি এটি তো মেহেদী অনুষ্ঠানে পড়তে হয়….. আমার পরক্ষণেই মনে পরল আজ তো আংকেল এর মেয়ের মেহেদী অনুষ্ঠান…
তাই আর দেরি না করে ওয়াশরুমে গিয়ে পাঞ্জাবি পড়ে নিচে নেমে আসলাম…
এসে যা দেখলাম তার জন্য আমি মোটেও প্রস্তুত ছিলাম না….

আমি চেষ্টা করেছি ভালো কিছু আপনাদের উপহার দিতে… যদি কোন ভুলত্রুটি হয় গল্প লেখায় ..আশা করি ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন….
আর হে গল্প কেমন হলো বলবেন নিরবে পড়ে চলে যাবেন না….
.
.
চলবে………………