জোর করে বিয়ে পার্টঃ ১৪ (শেষ পর্ব)

0
1634

জোর_করে_বিয়ে
পার্টঃ ১৪ (শেষ)
লেখকঃ সিয়াম হোসেন

সিয়াম বিকালের দিকে মন খারাপ করে ছাদের এক কোনায় দাড়িয়ে আছে । আর সানজিদা আসতে আসতে ছাদে এসে দেখলো যে সিয়াম এক কোনায় দাড়িয়ে আকাশের দিকে তাকিয়ে আছে ।
-সিয়াম (পিছন থেকে সানজিদা)
সানজিদা এসেছে দেখে সিয়াম ছাদ থেকে নেমে যেতে চাইলো ।

-তোমার সাথে আমার একটা কথা ছিলো । (সানজিদা)
-কি (সিয়াম মন খারাপ করে )
-আমার উপর রেগে আছো (সানজিদা)
-রাগ করার অধিকার নেই‌ আমার (সিয়াম)
-আমি জানি তুমি আমার উপর রাগ করে আছো (সানজিদা)
-বাদ দাও কি বলবা বলো (সিয়াম)
-তুমি আমাকে বিশ্বাস করো নিলয়ের সাথে আমার কোনো সম্পর্ক নেই (সানজিদা)
-কি ভাবে বিশ্বাস করবো নিজের চোখে দেখেছি (সিয়াম)
-অনেক সময় যেটা দেখা যায় সেটা হয় না আবার যেটা হয় সেটা দেখা যায় না । (সানজিদা)
-তা এখন কি বলতে চাও (সিয়াম)
-বলছি তুমি আমাকে…(কথা থাকিয়ে দিয়ে)
-বুঝেছি আর বলতে হবে না যাও ‌আমি তোমাকে মাফ করে দিলাম । (সিয়াম)
-সত্যি (সানজিদা খুশি হয়ে )
-হুমম আর সাথে তোমাকেও মুক্তি করে দিবো (সিয়াম)
-মানে
-আজকে উকিলের কাছে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি (সিয়াম)
-উকিলের কাছে কিন্তু কেনো । (সানজিদা)
-তোমার আর আমার ডিভোর্সের জন্য এটার জন্যই তুমি এখানে বেধে আছো তাইনা তাই তোমাকে মুক্তি দিতে চায় আসলেই‌ আমার প্রথমে বোঝা উচিত ছিলো জোর করে ভালোবাসা পাওয়া যায়না । (সিয়াম)
সিয়াম কথা গুলো বলেই বাসা থেকে বের হয়ে গেলো ।
সানজিদা ছাদের উপর হাটু ভাজ করে বসে পড়েছে । কি থেকে কি হয়ে গেলো আমার আর সিয়ামের ডিবোর্স মানে আচ্ছা ও কি বুঝতে পারেনা যে আমিও ওকে ভালোবাসি তারপরও কেনো এমন করছে । ঠিক আছে ও যদি আমাকে ডিবোর্স দিয়ে ভালো থাকে তাহলে ঠিক আছে । ও খুশি থাকলেই হলো । তারপর সানজিদা রুমে চলে এলো ।
-কিরে সানজিদা কোথায় গেছিলি (সিয়ামের মা)
-ছাদে
-কেনো
-এমনি
-সিয়ামের সাথে কথা বলেছিস (মা)
-হুমম
-কি বললো এখনও কি রেগে আছে (মা)
-……….
-কি হলো কথা বলছিস না কেনো আর পানি কেনো চোখে সিয়াম কি আবার কিছু বলছে । (মা)
-মা ও আমাকে ডিবোর্স দিতে চায় (সানজিদা বলেই সিয়ামের মাকে জড়িয়ে ধরলো)
-কি ডিবোর্স মানে না দাড়া আমি সিয়ামের সাথে কথা বলছি(মা)
-না আম্মা আপনি কিছু বলবেন না ও যদি আমাকে ডিবোর্স দিয়ে খুশি থাকে তাহলে দিক (সানজিদা)
-ডিবোর্স দিবে মানে আমি বেঁচে থাকতে এটা কখনই হতে দিবো না আজকে আসুক বাসায় (মা)
-আম্মা আপনি ওকে কিছু বলবেন না আমার দিব্বি (সানজিদা)
-কিন্তু মা এই অন্যায়টা আমি কি করে মেনে নিবো (মা)
-……….
-আচ্ছা আমার কাছে একটা উপায় আছে (মা)
-কি
-তোর সাথে যা কিছু হয়েছে সেটা একটা চিঠিতে লিখে সিয়ামের বালিশের নিচে এমন ভাবে রেখে দিবি যাতে সিয়াম দেখতে পারে তারপর তুই মিমের মামা বাসায় চলে যাবি সিয়াম যখন চিঠিটা পরে নিজের ভুল বুঝতে পারে দেখবি সব ঠিক হয়ে গেছে (মা)
-কিন্তু যদি না হয় । (সানজিদা)
-না হলে আমি আছি আমি থাকতে কখনই ডিবোর্স হতে দিবো না । (মা)

সানজিদা সেই কথা অনুযায়ী একটা চিঠি লিখে সিয়ামের বালিশের নিচে রেখে মিমের মামার বাসায় চলে গেলো ।

এদিকে সিয়াম রাত দশটার সময় বাসায় এসে নিজের রুমে চলে গেলো । ঘুমাতে যাবে এমন সময় মনে হলো বালিশের নিচে কিছু একটা আছে । বের করে দেখলো একটা চিঠি । সিয়াম চিঠিটা খুলে পড়তে শুরু করলো ।

-সিয়াম কেমন আছো । জানিনা এই‌ চিঠিটা তুমি পড়বে কিনা যদি পড়ো তাহলে একটু মনোযোগের সাথে পড়বা ।

তুমি আমাকে সহ্য করতে পারছো না তাই আমাকে এখন ডিবোর্স দিতে চাচ্ছো । কিন্তু আমি এটা কি ভাবে মেনে নিবো কারণ আমি যে তোমাকে ভালোবাসি । যার জন্য চলে যাচ্ছি । হ্যা আমি তোমাকে প্রথমে ভালোবাসিনি কিন্তু বিশ্বাস করো এক সময় তোকে সত্যি ভালোবেসে ফেলেছি কিন্তু কখনও বলিনি কারণ তোমার বদ অভ্যস গুলো ভালো করতে চেয়েছিলাম কিন্তু সেটা হয়তো আর হলো না । সেদিন কফি শপে যেটা নিলয়ের সাথে যেটা দেখে ছিলে সেটা ভুল ছিলো (কফি শপে যেটা হয়েছিলো সেটা লিখলো সানজিদা) জানি হয়তো তুমি আমাকে ভুল বুঝছো হয়তো ভাবছো আমি এই গুলা বানিয়ে লিখছি কিন্তু বিশ্বাস করো আমার সাথে নিলয়ের কোনো সম্পর্কই নেই। যাই হোক তুমি যখন আমাকে ভালোই বাসো না তখন আমি নিজেই তোমার থেকে চলে যাচ্ছি ভালো থেকো ।

সিয়াম চিঠিটা পড়ে নিজের ভুলটা বুঝতে পারলো তাই সে তাড়াতাড়ি নিজের মায়ের কাছে গেলো ।
-আম্মু সানজিদা কোথায় (সিয়াম)
-আমি কি করে বলবো দেখলাম একটা ব্যাগ নিয়ে বাসা থেকে বের হয়ে গেলো (মা)
-বাসা থেকে বেড়িয়ে গেলো আর তুমি আটকালেনা (সিয়াম)
-এখন আমি কিভাবে বলবো যে ও কোথায় যাচ্ছে আমি তো মনে করছি তুই ওকে যেতে বলেছিস তাই চলে গেছে (মা)
-ধুর
সিয়াম বাইরে এসে সানজিদার নাম্বারে ফোন দিলো কিন্তু ফোন বন্ধ বলছে ।
একবার ভাবলো সানজিদার বাবার নাম্বারে ফোন দিবে কিন্তু এতোক্ষনে তো সেখানে গিয়ে পৌছানো সম্ভব না তাই আর দিলো না শুধু শুধু তারা চিন্তা করবে এটা ভেবে । কিন্তু কোথায় যেতে পারে । আচ্ছা মিমের মামার বাসায় যায়নি তো এটা ভেবেই মিমের মামার বাসায় চলে গেলো সিয়াম ।

-আরে দুলাভাই আপনি এতো রাতে (মিম দরজা খুলে )
-সানজিদা এসেছে তোমাদের এখানে (সিয়াম)
-সানজিদা কই নাতো কেনো সানজিদা কোথায় (মিম)
– সত্যিই কি তোমাদের এখানে আসেনি (সিয়াম)
-না
-আসে নি নাকি তুমি আমাকে মিথ্যা বলছো (সিয়াম)
-আমি কেনো আপনাকে মিথ্যা কথা বলবো (মিম)
-ওহ্
সিয়াম ওখান থেকে মন খারাপ করে বেড়িয়ে যেতে লাগলো ।

-কই‌ যাও (পিছন থেকে সানজিদা)
সিয়াম যেনো সানজিদাকে দেখে প্রাণ ফিরে পেলো
-সানজিদা তুমি এখানে আর আমি তোমাকে সারা জায়গায় খুজে বেড়াচ্ছি (সিয়াম)
-কেনো আমি কে যে আমাকে খুজছো তুমি তো আমাকে মুক্তি দিতে চেয়েছো (সানজিদা)
-সানজিদা আমি আমার ভুল বুঝতে পেরেছি আমাকে মাফ করে দাও চলো বাসায় যাবে । (সিয়াম)
-কোন অধিকারে তুমি তো ডিবোর্স দিবে উকিলের কাছেও গেছিলে আজকে (সানজিদা)
-হ্যা বলেছিলাম কিন্তু আমি যায়নি আসলে নিলয়ের সাথে তখন সেটা আমি মেনে নিতে পারিনি প্লিজ আমাকে মাফ করে দাও । (সিয়াম)
-আর কখনও কষ্ট দিবা না তো (সানজিদা)
-এই যে কান ধরছি আর কখনও না । (সিয়াম)
বলেই দুজনে হেসে উঠলো । তারপর সিয়াম সানজিদাকে নিয়ে বাসায় চলে এলো । সানজিদা সিয়ামের মাকে নিজের বৃদ্ধা আঙুল দেখিয়ে বোঝাতে চাইলো যে কাজ হয়েছে ।

-সিয়াম তোমাকে একটা কথা বলার ছিলো (সানজিদা)
-কি
-আসলে এই চিঠির প্লানটা আম্মার ছিলো (সানজিদা)
-কি তার মানে আম্মু জানতো তুমি কোথায় তার পরও এতো ঘুরালো (সিয়াম)
-হি হি হি আচ্ছা তুমি কি আমাকে সত্যি ভালোবাসো‌(সানজিদা)
-হুমম তবে আমার একটা স্বপ্ন আছে যেটা পূরণ করবা (সিয়াম)
-কি
-ছাদে চলো (সিয়াম)
-পাগল নাকি এতো রাত কেউ ‌ছাদে যাই (সানজিদা)
-আগে চলো তো তারপর দেখবা (সিয়াম)
সিয়াম সানজিদাকে নিয়ে ছাদে চলে এলো ।
-কি স্বপ্ন যে এতো রাতে ছাদে নিয়ে এলো । (সানজিদা)
-দেখেছো আজকে আকাশে কত সুন্দর চাঁদ উঠেছে আর চারপাশ টাও ফাকা (সিয়াম)
-হুমম তো (সানজিদা)
-চলো‌না আমরা দুজনেই মিলে এই ‌চন্দ্রালোকে স্নান করি (সিয়াম)
-না একদমই না (সানজিদা)
-দেখো এটাই আমার স্বপ্ন যেটা আমি বাসর রাতে দেখেছিলাম কিন্তু তুমি পূরণ হতে দাওনি আজকে পূরণ করতেই‌ হবে (সিয়া‌ম)
-যদি না করি (সানজিদা)
-যদি না করো তাহলে তোমার সাথে আর কথায় বলবো না হু (সিয়াম বলেই অন্য দিকে ঘুরে দাড়ালো)
-রাগ করছো বুঝি (সানজিদা)
-………
-কথা বলবানা আমার সাথে (সানজিদা)
-………
-ঠিক আছে তোমার স্বপ্ন পূরণ করবো তবে একটা শর্ত আছে (সানজিদা)
-কি( সিয়াম আগ্রহ নিয়ে)
-আমাকে এখান থেকে কোলে করে নিয়ে যেতে হবে (সানজিদা)
-এটা তো কোনো বেপারই না (বলেই সিয়াম সানজিদাকে কোলে করে ঘরে নিয়ে গেলো)

আসুন আমরা চলে আসি ওরা স্বপ্ন পূরণ করতে থাক ।‌

সমাপ্ত ।