ভালোবাসি পর্ব_০৯

0
1356

#ভালোবাসি?
#পর্ব_০৯
#স্বর্ণালি_আক্তার_শ্রাবণ

?
ছাদে বসে আছে পলক।তার কোলে বসে আচার খাচ্ছে অপা। আর পলক কিছু ফাইল চেক করছে।শীতের সকালের মিষ্টি রোদ দুজনের গাল মুখ ছুঁয়ে যাচ্ছে।হালকা রোদে বিশাল ছাদের মধ্যে পাটি বিছিয়ে বসে থাকতে বেশ বভালো লাগছে অপার! হঠাৎ করে অপা বলে উঠলো

স্যার

ফাইল চেক করতে করতে পলক শুধু হু করলো

এই স্যার…শোনেন আমার কথা

হুম শুনছি

কাল কলেজ যাই

কেনো?

অনেকদিন যাই না দম বন্ধ হয়ে আসছে।তাছাড়া ইরি তুলির সাথে ও কথা হয় না সেই কবে থেকে।অনলাইনেও আসছে না।(মন খারাপ করে)

আচ্ছা কাল যেও।আমি আসার সময় নিয়ে আসবো।

অপা বেশ খুশি হলো।আবারও আচার খাওয়ায় মন দিলো সে।

ফাইল চেক করে সব রেখে অপার হাত থেকে আচরের বাটিটা নিয়ে নিলো।ভ্রু কুচকে সেদিকে তাকিয়ে রইলো অপা।

এত খেলে পেট পাকাবে।আর খেও না..

তাহলে আপনি খান!

উহু আমি এসব খাই না..

কেন খান না একটু..

উহু

ওকে!খেতে হবে না।হুহ
তাহলে চলেন নিচে যাই।

এখনি?

খুদা লাগছে.. ব্রেকফাস্ট করবো না?

এই তো কত্ত আচার খেলে।

আচারে পেট ভরে?

ভরে না?

না!চলেন তো..

উঠে নিচে গেলো দুজন!

!
!
!
!
ব্রেকফাস্ট করার সময়েই একজন সার্ভেন্ট এসে জানালো অপার সাথে কেউ দেখা করতে এসেছে!
অপা অবাক হয়ে ভাবলো কে তার সাথে দেখা করতে আসতে পারে? তিয়াস নাকি?বউ নিয়ে এসেছে?তা হলে তো এই ব্যাটাকে আজ লাথাতে লাথাতে বাড়ির বাহিরে নিয়ে যাবে..!

কিছুটা রেগে খাওয়া ছেড়ে উঠে গেলো অপা।বসার ঘরে তেড়ে গিয়ে থেমে গেলো!

ধীরে সুস্থে জিজ্ঞেস করল কে আপনি?জ্বি বলুন কেন খুঁজছিলেন আমায়?

সামনে থাকা লোকটা অপার মাথা থেকে পা অব্ধি চোখ বুলাচ্ছে!এমন ভাবে দেখছে যেন অপা কোনো বস্তু আর সে কিনতে এসেছে!

অপা নিজের মাথায় ওড়না টেনে নিলো।পরনে ছিলো রাউন্ড ফ্রক-স্যালোয়ার-ওড়ানা!
লোকটা এখনো চেয়েই আছে অপার দিকে!

কি সমস্যা কিছু বলছেন না কেনো?এভাবে চেয়ে আছেন কেনো?কে আপনি?কিছুটা ঝাঁঝালো কণ্ঠে বলল অপা।

ভেবেছিলাম সম্পত্তিতেই হবে!কিন্তু এখন দেখছি সম্পত্তির সাথে একটা বউও ফ্রী পাবো!এতে বাবার খুনের প্রতিশোধ নেয়াও হবে!ঠোঁট উল্টে বললো রিশান!ভাইয়ের লাক টাই খারাপ..ইসস আফসোস

চুল ঠিক করতে করতে ড্রয়িংরুমে এলো পলক!রিশানকে দেখে কিছু বলতে যাবে তার আগেই রিশান ড্রামা শুরু করে দিলো!

অপরাজিতা.. তুমি আর তোমার বাবা আমার সাথে এভাবে প্রতারনা করবে আমি ভাবি নি!ছিঃ

পলক চুপ হয়ে গেলো।হাত দুটো ভাঁজ করে তীক্ষ্ণ নজরে তাকিয়ে রইলো রিশানের দিকে!

অপা হা হয়ে তাকিয়ে রইলো রিয়াদের দিকে!

রিশান এগিয়ে গেলো পলকের কাছে!হাই মিস্টার নিশান পলক!অপা আর আমার বিয়ে হয়েছে ৬ মাস আগেই!ওর বাবা নিজে দিয়েছেন!
আমার কাছে সব প্রুফ আছে…
বলেই বিফকেস থেকে সব কাগজ পত্র বের করে পলকের হাতে দেয়!পলক এসব ড্রামা সম্পর্কে সব জানে!কারন..

রিশান বাসায় ঢোকার ঠিক দুই মিনিট পরই তার মা তাকে কল করে সবটা জানিয়ে দেয়।দুদিন আগেই ফেরার কথা ছিলো তার।কিন্তু রিশান তাকে আটকে রেখেছে!আজ খুব কষ্টে রিশানের মা তাকে কল করতে দেয়।সেও যে বন্ধী!রিশান রিয়াদ সৎ ভাই!

পলক সব কাগজ পত্র দেখে কিছুটা স্তম্ভিত হয়!খুব পাকা পোক্ত পেপারস্।অপার বয়স আঠেরো দেয়া!তার বাবার সাইন!এমনকি অপার নিজের সাইন!আরো অনেক কিছু!

পলকের দমে যাওয়া দেখে রিশান মুচকি হাসে।সে জানে পলক তাকে চেনেই না।কিন্তু পলক তো তার জাতিগোষ্ঠী সব চেনে!

অপা এরকম অভিনয় বাবা মেয়ে না করলেও পারতে..কাঠ কাঠ গলায় বলল পলক।

অপা চিৎকার করে বলল থামো তোমরা..কি শুরু করছো হ্যা?আমি এই লোকটাকে আজ প্রথম দেখছি..

মি.পলক পেপারস অনু্যায়ী অপা এখনো আমার ওয়াইফ!তার মানে আপনার সাথে বিয়েটা ফলস্!
আমি নিশ্চয়ই ওকে নিয়ে যেতে পারি.

পলক চুপ করে রইলো!

অপা চলো..বলেই রিশান ওর হাত ধরে টানতে টানতে বাহিরে নিয়ে গেলো!অপা পিছু ফিরে স্যার স্যার করে চিৎকার করে ডাকছে!পলক কিছুই বললো না আর না আটকাতে চেষ্টা করলো।

পলক দীর্ঘশ্বাস নিয়ে অপার চলে যাওয়ার দিকে তাকিয়ে থেকে ফোন করলো।

চলবে_