ভোরের কুয়াশা পর্বঃ০১

0
1347

ভোরের_কুয়াশা
#পর্ব_১
#Misty_Meye(মরিয়ম )

রেলস্টেশনে গা ভর্তি গহনা পড়ে বসে আছি ট্রেনের অপেক্ষায়।কিন্তু ট্রেনের আসার নাম-গন্ধও নেই।খবর নিয়ে জানতে পারলাম ট্রেনের রাস্তায় কোথায় যেনো খারাপ হয়ে গেছে তাই আজকে আর কোন ট্রেন নেই।এখন রাত দশটা।এতো রাতে কই যাবো তার জন্যই এখানে বসে থাকা।

আমি কুয়াশা। অনার্স ২য় বর্ষতে পড়াশুনা করছি।আসলে,আমি বাড়ি থেকে পালিয়েছি।আজ আমার বিয়ে ছিলো।আমি বিয়ে করবোনা বলে পালিয়েছি।আমি হোস্টেলে থেকে পড়াশুনা করছি।কিন্তু তিনদিন আগে বাবা আমাকে হোস্টেল থেকে নিয়ে আসছে কোন কারন ছাড়া।আমি জিজ্ঞাসা করেছিলাম কিন্তু বাবা কিছুই বলেনি।আমিও বিষয়টা নিয়ে তেমন মাথা ঘামাইনি।তাই নিশ্চিত মনে বসে আছি।কিন্তু যখন শুনলাম তখন আমার গায়ে হলুদের অনুষ্টান শুরু হয়ে গেছে।অনেক চেষ্টার পড়েও পালাতে পাড়িনি।কিন্তু বিয়ের দিন পার্লারে যাবার নাম করে পালিয়ে আসছি।

হঠাৎই কোথা থেকে যেনো কতোগুলো লোক এসে আমার দিকে কেমন খারাপ দৃষ্টিতে তাকিয়ে আছে।আমার মোটেও ভালো লাগছেনা লোকগুলোকে।ইচ্ছা করছে এক থাপ্পড় মেরে সবগুলার দাত ভেংগে ফেলি।কিন্তু আমি একা একটা মেয়ে। এখন কিছু করলে হিতে বিপরীত হতে পারে। তাই চুপ থাকাটাই শ্রেয় মনে করছি।

হঠাৎই ছেলেগুলা আমাকে বাজে বাজে কথা শুনাতে থাকলো।আমার কাছে আস্তে আস্তে এগোতে লাগলো। আমার কাছে আসতেই আমি দৌড়ে পালাচ্ছি।এতো দৌড়াচ্ছি যে সামনে কি আর পেছনে কি কোনো খবরই রাখছি না।আমি চোখমুখ খিচে দৌড়।লোকগুলোও আমার পিছে পিছে দৌড়াচ্ছে।আমি এই শাড়ি গয়না নিয়ে হাপিয়ে উঠছি।আর তখনি আমি একটা গাড়ির সামনে যেয়ে পরি।গাড়ি থেকে একজন নেমে আসে।কে আসে আমি কিছু না দেখেই কোনকিছু না ভেবে ওই লোকটার কাছে গিয়ে হেল্প চাইলাম।লোকটা সামনের দিকে তাকালো।

এরপর যা হওয়ার তাই ই হলো।লোকটা ছেলেগুলোকে মেরে আধমরা করে রেখে চলে আসে।লোকটাকে আমি চিনিনা।তাই একটা থ্যাংকস জানিয়ে চলে যাচ্ছিলাম।তখনি লোকটা আমাকে জোড় করে তুলে নেয়।আমি কিছুই বুঝলামনা।তাই আমি বললাম আশ্চর্যতো আপনি আমায় এভাবে গাড়িতে তুলে নিচ্ছেন কেনো?দেখুন আপনি আমাকে সাহায্য করেছেন বলে যা খুশি তাই করবেন নাকি।বলতে বলতে লোকটা গাড়িতে বসে চুপ করে ড্রাইভ করা শুরু করে দিয়েছে।একটা কথা ও বলছেনা।আর আমি বলেই যাচ্ছি কি হলো আমাকে নামিয়ে দিন প্লিজ।তা না হলে আমি কিন্তু চিৎকার করবো।এইযে আমার কথা কি আপনার কানে যায়না।

কিহলো এইটাতো আমার বাড়ির রাস্তা।এইখান দিয়ে আপনি কই যান।এখানে যাবেননা প্লিজ,প্লিজ,প্লিজ।আমার বাড়িতে আমাকে মেরে ফেলার প্লেন করছে প্লিজ যাবেন না।অনেক কষ্টে বাড়ি থেকে পালিয়েছি।ব্যাক করুন গাড়িটা।আমার কথাটা শুনুননা।(বলে কান্নাই করে দিচ্ছি।)

ওমা লোকটা আমার বাড়ির সামনে গাড়ি থামালো।এবার কি হবে।গাড়িটা থামিয়েই আমার হাতটা ধরে টানতে টানতে ভিতরে নিয়ে যায়।আমি শুধু অবাকই হচ্ছি।আর ভাবছি লোকটা আমার বাড়ি চিনলো কিভাবে?

ভাবনার জগৎ থেকে বের হয়ে আসলাম লোকটার কথা শুনে।আমার বাবাকে বলছে আংকেল বিয়ের ব্যবস্থা করুন।আমি এক্ষুনি বিয়ে করতে চাইছি।আর এক মুহূর্ত আমি ওয়েট করবোনা।যত শিঘ্রই সম্ভব শুরু করুন।

লোকটার কথা শুনে বুঝলাম এই লোকটার সাথেই আমার বিয়ে ঠিক হয়েছে।ও আল্লাহ গো এ আমি কি করলাম আমার শএুর কাছেই আমি হেল্প চাইছিলাম।এখন আমার কি হবে।আমি মরে গেলাম গো মরে গেলাম।(মনে মনে)

তারপর……………………