ভোরের কুয়াশা পর্বঃ১০

0
837

#ভোরের_কুয়াশা
#পর্বঃ১০
#Misty Meye(মরিয়ম)

___আমি ন্যাকা কি তাই জানি না।,,,,,, আবার ন্যাকা সাজবো।হু,,,,,

___কুয়াশাআয়ায়ায়ায়ায়া,,,,,,,,(চোখ গরম করে)

___উফঃ আপনার বারবার কুয়াশা ডাকতে মুখ ব্যাথা হয় না।খালি কুয়াশা,কুয়াশা আর কুয়াশা।কুয়াশা ছাড়া কি কিছু আসে না মুখে।কিন্তু আপনাকে কিন্তু সত্যি সত্যি রাক্ষস রাখছে।(বলে দিলাম এক দৌড়)

___আজকে তোমার খবর আছে কুয়াশা,,,,(বলে ভোর ও দৌড়)

তারপর ভোর ও আমার পিছে দৌড় দেয়।আর আমি সারাবাড়ি দৌড়াচ্ছি আর ভোরও।অনেক দৌড়ানোর পর আমিও হাপিয়ে যাই।আর ভোর ও হাপাতে থাকে।দুইজনই বসে পড়ি।আমি খাটে আর ভোর শোফায়।আমি একটু জিরুচ্ছি।আর ভোর তখনি আবার আমার হাত খোপ করে ধরে বলে,,,,

___আমার এই অবস্থার জন্য তুমি দায়ী। এখন তুমি এগুলা পরিষ্কার করে দিবে।

___কি,,,,,আমি আপনার রাক্ষস মার্কা থুক্কু এই কালি ভরা মুখ পরিষ্কার করবো।

___হ্যা করবে।তুমি যখন করছো তখন তুমিই পরিষ্কার করে দিবে।

___কেনো আপনার কি হাত নাই।যে আপনাকে আমায় হেল্প করতে হবে।

___সব আছে।কিন্তু তুমিই করবা।

___নাহ,,,, প্লিজ….

___কোন না নেই।চলো,,,,,,

তারপর আমাকে ওয়াশরুমে নিয়ে গিয়ে ওর সবকিছু পরিষ্কার করে যখন একটু বসেছি তখনই আবার শুরু হলো ভোরের নতুন অত্যাচার।

___চলো,,,(ভোর)

___কই যাবো,,,,(আনি)

___কিচেনে,,,,

___কেনো?

___কেনো মানে,,,,,মানুষ কি করতে কিচেনে যায়?

___কি করতে,,,,,

___রান্না করতে,,,,,

___ওহ,,,,,কি তারমানে কি আপনি আমাকে এখন রান্না করতে বলবেন।

___হ্যা,,,একদম ঠিক ধরেছো তুমি,,,,,

___আপনি জানেন তো যে আমি রান্না পারি না।তাহলে,,,,,

___তোমাকে শিখতে হবে,,,,

___কিভাবে,,,,,,,শিখবো?(অবাক হয়ে)

___আমি শিখাবো তোমাকে।এবার চল।

___আচ্ছা কালকের থেকে ট্রাই করবো।আজকে না প্লিজ,,,,,

___আমি যখন এখন বলেছি তখন এখনি।

তারপর আমাকে টানতে টানতে নিচে কিচেনে নিয়ে গিয়ে রান্না শেখানো শুরু করলো।একটু একটু সবই শেখাচ্ছে।

এবার ভোর আমাকে মাছ ভাজতে বলল,,,,

___কুয়াশা,,,, এই মাছগুলো একটা একটা করে আস্তে করে তেলে ছাড়বে বুঝেছো।

___হুম বুঝলাম,,,,আচ্ছা,,,, এই মাছটা যদি ভাজতে যাই,,,, তখন মাছটা যদি লাফ দিয়ে আমার গায়ে চলে আসে তখন,,,,,

___মানে,,,,,,

___মাছ লাফ দিয়ে যদি আমাকে কামরে দেয়।

___কিই,,,,,মাছ আবার তোমাকে কামড়াবে কেনো?

___ওইযে,,,,, প্রতিশোধ,,,, ওরে যদি আমি ভাজতে যাই তার প্রতিশোধ হিসেবে আমাকে নিশ্চয় কামড়াবে তাই না।

___কুয়াশা,,,,, তুমি সত্যি পাগল।

___আবারো আপনি ভুল বললেন আমি মেয়ে তাই ওইটা পাগলি হবে,,,,,

___চুপ,,,,খালি বেশি কথা বলো তুমি,,,,

___হু,,,, (মুখ বাকিয়ে)

___নাও এবার মাছটা ছাড়ো,,,,,

___ওকে,,,,,,

বলে ঠাস করে ছেড়ে দিই আর তেল ছিটে আসতে গেলে আমি দৌড়ে ভোরকে জড়িয়ে ধরে চোখ বন্ধ করে,,,, বলি,,,,,,

___বলেছি না।মাছটা আমার উপর প্রতিশোধ নিবে,,,,,,মাছটা কি লাফ দিয়ে দিছে নাকি দিবে,,,,,,আর আমাকে কামড়াবে কখন,,,,,,

___এখনি কামড়াবে,,,,তুমি রেডি হও।

___ওরে বাবারে,,,,প্লিজ,,,, আমি আর মাছ ভাজবো না প্লিজ,,,,,

___চুপ,,,,,তাকাও এদিকে,,,,,

___না,,,,,

___তাকাও বলছি,,,,,,,

___দূর,,,, তাকিয়েছি বলুন (ভোরকে ছেড়ে দিয়ে)

___দেখো,,,, কিভাবে মাছ ভাজতে হয় বলে

ভোর আমাকে সবটা দেখিয়ে দিলো।তারপর আমিই আস্তে আস্তে সব গুলা মাছ ভেজে নিলাম।আমার এখন অনেক খুশি খুশি লাগছে,,,,আমিও একটু একটু রান্না পারি,,,,,কি মজা।,,,,,

সব কিছু রান্না করে দুজন মিলে সাজিয়ে খাবার টেবিলে বসে পড়ি।তারপর ভোর এক প্লেটে খাবার বাড়ে।

____কি হলো,,,,আপনি একটাতে খাবার বাড়ছেন কেনো?

___তাহলে কয়টায় বাড়বো।

___মানে,, মানুষ দুইজন আর প্লেট একটা,,,,

___তো।শোন,,,এখন থেকে আমরা এক প্লেটেই খাবার খাবো।অবশ্য আমি যখন বাইরে যাবো তখন তুমি একাই খাবে।কিন্তু যখন আমি বাসায় আছি তখন এক প্লেটেই খাবো। বুঝেছো।আর আমি তোমাকে খাইয়ে দিবো।আর তুমি চাইলে তুমিও আমাকে খাইয়ে দিতে পারো।

___কিই,,,আমি আপনার হাতে খাবো না।

___খেতে হবে।হা কর,,,,,,

___নায়ায়ায়া,,,

___তাহলে কিন্তু মাইর খাবা,,,,

___ওকে,,,,,,,কিন্তু আমি আপনাকে খাওয়াতে পারবো না।

___ওকে। আমি তোমাকে জোড় করবো না।তোমার যেদিন ইচ্ছা হবে তুমি সেদিনই আমাকে খাওয়াবে।ওকে,,,,

___হুম।(পালিয়ে যখন যাবো।তখন আপনিইতো আমাকে খাওয়াতে পারবেন না।আর আমি তো পরে।)

তারপর ভোর আমাকে খাইয়ে দিচ্ছে আর নিজেও খাচ্ছে।আর আমি ভোরের সাথে গল্প করে খাচ্ছি,,,,

___আচ্ছা আপনার পরিবারের লোকজন কই,,,,,কাউকে তো একবার ও দেখলাম না।নাকি ওদেরকেও আপনি অন্য কোথাও পাঠিয়ে দিছেন।আমাকে একা রাখার জন্য,,,,,,হুম,,,,,,

____আমার মা,,,,,,,,,,,,

চলবে………….