রূপসীর_আচল পর্ব-০৩

0
2204

#রূপসীর_আচল
#লেখক_আকাশ_মাহমুদ
#পর্ব_৩

দরজায় কে জানি অনবরত বাড়ি দিচ্ছে,হিয়াকে ছাড়িয়ে নিয়ে উঠে গিয়ে দরজা খুললাম,দরজা খুলে যা দেখলাম পুরো মহল্লাবাসী আমার ঘরের সামনে এসে একত্রিত হয়েছে,তাদের মধ্যে সবার সামনে রয়েছে বিবিসি জানালা আপা?
বাড়ি ওয়ালার কানে মনে হয় এখনো পৌছায় নাই খবর…!

এলাকার একজন বয়স্ক চাচা আমার পরিচিতই,এখানে থাকতে থাকতে অনেকের সাথে পরিচিত হয়ে গেছি…!

চাচা,আকাশ তুমি নাকি অবলা মেয়ে একটাকে নিয়ে ঘরে উঠেছো এমন খবর কানে আসলো…?

আকাশ,চাচা?

বিবিসি আপা,এই এখন চুপ করে আছিস কেন,হা চাচা কালকে আমার সামনেই মেয়েটাকে নিয়ে ঘরে উঠেছে…!

চাচা,কই দেখি মেয়েটাকে বাহির করো…!

আকাশ,আমি গিয়ে হিয়াকে ডেকে তুললাম,হিয়া একটু উঠো বাহিরে অনেক মানুষ এসেছে,হিয়া ঘুম থেকে উঠে বাহিরে আসলো…!

চাচা,এই মেয়ে তুমি কে…?
আর আকাশের বাসায় কি করো…?
আকাশের তো এখনো বিয়ে হয় নি, নাহলে ভাবতাম যে বউ নিয়ে এসেছে ঘরে…!

হিয়া,চাচার এত গুলো প্রশ্ন শুনে চুপ করে আছে,কি বললে কিছুই মাথায় কাজ করছে না,হিয়ার হাত পা যেন কাপা শুরু করে দিয়েছে,

এমন সময় আকাশ চাচা আমি বলছি কি হয়েছে,আসলে চাচা আমরা দুইজন দুইজনকে বহু আগের থেকে ভালোবাসি,ওর ফ্যামেলির কেউ রাজি নাই তাই গতকাল আমরা পালিয়ে বিয়ে করে ফেলেছি,আর আমার বাসায় ওকে নিয়ে এসেছি…!

হিয়া, তো পুরা থথথথথ আকাশের কথা শুনে,হিয়ার সব যেন মাথার উপর দিয়ে গেলো?

চাচা তাহলে ঠিক আছে…!
এমন সময় বিবিসি জানালা আপা বলে উঠলো, চাচা বিয়ে করেছে বললো আর আপনি মেনে নিলেন…?
পাড়ার পরিবেশ নষ্ট করছে এই ছেলে,এই ছেলে বিয়ে করেছো যে প্রমান দেখাও…?

চাচা,হা বলেছো রাহেলা আপা…!বিবিসির নাম রাহেলা,আকাশ যাও গিয়ে কাবিন নামা নিয়ে এসো আমরা সকলেই দেখবো যে তোমরা আসলেই বিয়ে করেছো কিনা..!

আকাশের তো মাথায় যেন ঠাডা পড়েছে মত অবস্থা, বাচার জন্য এমনটা বললো এখন আরো ভালোভাবে ফেঁসে গেলো…!

হিয়া, তো আকাশের দিকে রাগি লুক নিয়ে তাকিয়ে আছে,খচ্চর বেটা কে বলতে বলেছে বিয়ে হয়েছে আমাদের,আর আমরা দুইজন বহু আগের থেকে একজন একজনকে ভালোবাসি??
এখন ঠেলা সামলাও?

আকাশ,চাচা আসলে হয়েছি কি কাবিন নামা তো হাতে পাই নাই সব উকিলের কাছেই আছে, আমরা শুধু বিয়ে করে এখানে চলে এসেছি…!

বিবিসির জানালা আপা চাচা বললাম না বেটা আমাদের কে ঘোল খাওয়াচ্ছে,বিয়ে করেছে কিন্তু কাবিন নামা এখনো হাতে পায় নাই,শুনো বাছা আমরা এই সব বললে শুনছি না,এমন কোন একটা প্রমান দেখাও যে তোমরা বিয়ে করেছো…!

আকাশ,মাথা নিচু করে আছি কি করবো এখন….!

বিবিসি জানালা আপা,দেখছেন এখন মাথা নত করে আছে,তার মানে এখানে কোন ঘাবলা আছে,এলাকার মানুষজন ছি ছি করতেছে আমাদের দুজনকে নিয়ে..!

চাচা,এই এই সবাই থামেন,আমি কি বলি মন দিয়ে শুনেন,ওরা বিয়ে করেছি কি করে নাই সেটা পরের ব্যাপার, যেহেতু ওরা দুজন এক সাথে একি বাসায় রাত্রি যাপন করেছে,তার মানে সকলেই বুঝতেছেন তো,সবার সম্মুখে ওদের আবার বিয়ে হবে কি বলেন সবাই…?

সবাই এতে সম্মতি দিলো,এলাকাবাসী জোর করে আমার আর হিয়ার বিয়ে দিয়ে দিলো,এখানে মানা করার কোন সুযোগও নাই,মানা করা দূরের কথা এমন কথা আনলেও এলাকাবাসী মিলে আমাকে আর হিয়াকে কাঁচা গিলে খেয়ে ফেলবে…!

বিয়ে শেষ একজন আপা এসে আমার রুমটাতে বাসর ঘর সাজিয়ে দিয়ে চলে গেলো,রুমের বাহিরে দাঁড়িয়ে আছি,ভিতরে ঢুকবো কি ঢুকবো না দ্বিধাদ্বন্দে পরে গেলাম,কারন মেয়েটাকে বিপদের মুখ থেকে বাঁচিয়ে আনলাম আর সেই নিজেই আবার বিপদের মুখে ফেলে দিলাম,ধুর যা হওয়ার হবে এত কিছু ভেবে লাব নাই,রুমের ভিতরে গিয়ে দেখি মেয়েটা খাটের উপরে বসে আছে ঘোমটা দিয়ে..!

একটু সামনে যেতেই কান্নার আওয়াজ কানে আসলো,ওর কাছে গিয়ে এই হিয়া কান্না করছো কেন বলে যেই না ওর হাতটা ধরলাম ওমনি এক ঝাটকা দিয়ে হাতটা ছাড়িয়ে নিলো..!

হিয়া,আপনি আমার হাত ধরেছেন কোন সাহসে.?

আকাশ,হিয়া আসলে আমায় ক্ষমা করে দাও,আমি এসব কিছুই বুঝে শুনে করিনি,বিশ্বাস করো তোমাকে এভাবে ফাঁসানোর কোন ইচ্ছাই আমার ছিলো না??

হিয়া,হয়েছে আর বলতে হবে না,বলে আবার কান্না শুরু করে দিলো,
আমি আম্মুর সাথে কথা বলবো…?

আকাশ,আচ্ছা বলো..

হিয়া,বলবো কি করে আমার তো ফোন নেই..?

আকাশ,আচ্ছা দাঁড়াও এই নাও আমার ফোন দিয়ে কথা বলো…!

হিয়া,আমার হাত থেকে ফোনটা নিয়ে ওর বাসার নাম্বার ডায়াল করে ফোন দিলো,ফোনটা রিসিভ করতেই হিয়া আম্মু বলে কান্না করে দিয়ে বারান্দায় চলে যায়..!

আকাশ,আমি আর শুনতে পেলাম না ওদের মাঝে কি কথা হলো…!
বেশ অনেকটা সময় পর হিয়া এসে আমার হাতে ফোনটা দিয়ে বললো আম্মু কথা বলবে,

আকাশ,আম্মু?

হিয়া,লাইনে আছে নিন কথা বলুন…!

আমি,ফোনটা রিসিভ করে বারান্দায় চলে এলাম,আর উনাকে সালাম দিলাম,

উনি আমার সালামের উত্তরটা সুন্দর ভাবে নিলেন…!
বাবা আমি হিয়ার আম্মু বলছি বাবা যা হয়েছে হয়েছে,হিয়া আমাকে সব বলেছে ফাস্ট টু লাস্ট,বিয়ে জীবনে একবার এই হয়,বাবা তোমার পায়ে পড়ি আমার মেয়েটাকে দেখে রেখো,আর বাবা তোমার যা বর্ননা দিলো হিয়া তাতে করে বুঝে নিয়েছি তুমি কতটা ভালোমনের মানুষ, তবে বাবা হিয়া কান্নাকাটি করছিলো ওকে নিয়ে যাওয়ার জন্য,বাবা তুমি তো জানোই হিয়া হয়তো সবটা তোমাকে খুলে বলেছে,এখানে পরিস্থিতি ভালো না তোমার শশুর মশাই অনেক কষ্টে সবটা ম্যানেজ করে রেখেছে, হিয়া যদি আবার এখানে আসে তাহলে বড় ধরনের সমস্যা হবে…!

আকাশ,আচ্ছা আন্টি সমস্যা নাই আপনি ওটা নিয়ে টেনে করনেন না আপনার মেয়েকে আমি দেখে রাখবো…!

এই ছেলে আন্টি মানে কি হা আম্মু বলো আম্মু,

আকাশ,আচ্ছা আম্মু আপনি টেনশন করিয়েন না, আমি হিয়াকে দেখেশুনে রাখবো…!

কথা বলা শেষ করে একটা স্বস্তির নিশ্বাস ফেললাম যাক হিয়ার বাসা থেকে মেনে নিয়েছে,যাক যে ভাবেই হোক মনের আশাটা পূর্ণ হয়েছে,হিয়াকে প্রথম দেখেই ভালো লেগে গিয়েছিলো…!

কথা শেষ করে রুমে এসে দেখি হিয়া শুয়ে আছে,আর নাক টেনে টেনে কান্না করতেছে?

গিয়েই ওকে জড়িয়ে ধরলাম,কারন এখন তো আমার বউ☺
হিয়া,এই এই খচ্চর বেটা আমাকে জড়িয়ে ধরলেন কোন সাহসে…?

আকাশ,এখন কি তোমায় জড়িয়ে ধরতে সাহস লাগবে নাকি,কারন এখন তুমি আমার বউ যখন ইচ্ছে জড়িয়েও ধরতে পারবো..!
আর শাশুড়ী আম্মু বলে দিয়েছে তোমাকে দেখে শুনে রাখতে,তাই তোমার দেখা শোনা করছি…!?

হিয়া,ছাড়েন বলছি এখন কিন্তু খারাপ হবে না ছাড়লে…??
আকাশ,কি খারাপ হবে শুনি ?

হিয়া,আমার হাতে জোরে একটা কামড় দিয়ে উঠে পালিয়ে যাবে এমন সময় খপ করে ওর হাতটা ধরে ফেললাম আর এক টানে আমার কাছে নিয়ে আসলাম,এই বউ কই যাও তোমার দেখাশোনা করতে হবে তো..!?

হিয়া,মানে কি..??

আকাশ,মানে কি বুঝবা এখন আস্তে আস্তে ওর ঠোঁট জোড়ার দিকে এগোতে লাগলাম,ঠোঁট জোড়া অনবরত কাঁপতেছে,আমার তো ওর কোমল ঠোঁট জোড়া দেখে নেশা লেগে গেছে,তারপর ওর ঠোঁট জোড়া গুলো নিজের দখলে করে নিলাম…!

চলবে…?

ভুল ত্রুটি গুলো ক্ষমার নজরে দেখবেন…!