Dangerous_Girl পর্ব-৮

0
961

#Dangerous_Girl
পর্ব-৮
দুষ্ট পাগলীর মিষ্টি বর

জামালপুরে আমরা যেই পাড়াতে গেছিলাম ছেলেটাও সেই পাড়াতেই গেছিলো। আমরা তিনদিন ছিলাম সেখানে এবং তিন দিনই ছেলেটার সাথে আমার দেখা হইছে।

: এটা হতেই পারে।

: আরে শুনুন না। তিনদিন পর আমরা যেই গাড়িতে করে বাসায় ফিরছিলাম,,,, সেই গাড়িতে আবার ছেলেটার সাথে দেখা হয়ে গেলো। কেনো জানি এই ছোট ছোট ব্যপারগুলা আমায় খুব ভাবাতে লাগলো। আর আমি অবাক হতে শুরু করলাম।

: আর এটা থেকে আপনি ছেলেটার প্রতি দূর্বল হয়ে পরলেন?

: আরে না। রাজশাহীতে আমাদের বাসাছিলো পদ্মা আবাসিকে। আর সেই পাড়াতেই ছিলো ছেলেটার বাসা। অথচ সেই বাস জার্নি আগে কোন দিন আমি ছেলেটাকে দেখি নাই।

: তারপর

: তো বাসায় আসার পরদিন থেকে,,, প্রতিদিন কমপক্ষে একবার হলেও ছেলেটার সাথে আমার দেখা হতে লাগলো। হয় কলেজে যেতে-আসতে না হয় কোচিং এ যেতে-আসতে। একদিন আমি বানিজ্য মেলায় যাবো বলে কলেজ কোচিং কোথাও যাই নাই।

: তারপর

: আমি ভেছিলাম আজ হযত দেখা হবে না। কিন্তু আজব ব্যপার আমি মেলায় ঢুকার সময় ছেলেটার সাথে দেখা হয়ে গেলো ছেলেটা মেলা থেকে বের হচ্ছিলো। আমি সেইদিন এতটাই শক খেয়েছিলাম যা বলে বোঝাতে পারবো না। আর এভাবে ছেলেটার সম্পর্কে জানার আগ্রহটা বেড়ে যায় আমার। এভাবে আরো কিছু দিন যাবার পর একদিন রাতে দেখি ছেলেটা আমায় ফ্রেন্ড রিকুয়েষ্ট দিয়েছে ফেসবুকে। আর সেদিনি ওর নামটা জানা হলো। ছেলেটার নাম বিজয়।

: হুম বুঝছি তারপর প্রেম হয়ে গেলো তাই না।

: ধুর আপনি কথার মধ্যে এভাবে হেন্ডেল মারবেন না। এমন করলে কিন্তু আপনার হাত পা ভেঙ্গে পাউডার বানিয়ে দিবো।

: হুহ,,,, তারপর কি হলো বলুন।

: তারপর আবার কি কথা হতে শুরু হলো আমাদের। আমি তো ওর প্রতি আগে থেকে কৌতুহলী ছিলাম। তাই খুব বেশিদিন সময় লাগেনি ওর আমাকে কনভেন্স করতে। আমাদের রিলেশনটা শুরু হয়ে গেলো।

: তারপর

: প্রথম প্রথম নিজের কাছেই কেমন যেন লাগতে ছিলো। মনে হচ্ছিলো,,,, আমি কি মেয়ে হয়ে গেলাম নাকি। আর একটা ছেলের সাথে রিলেশন করছি আমি,, ব্যপারটা নিজের কাছেই অদ্ভুত লাগতে শুরু করলো।

: তারপর

: বিজয় ধীরে ধীরে কি ভাবে যেনো আমার সব কিছু বদলে দিতে লাগলো।

: কি রকম।

: প্রথমে ও আমার সিগারেট খাওয়া টা বন্ধ করে দিলো।

: তারপর

: তারপর ধীরে ধীরে আমার মাথায় মেয়ের ভুত চাপাতে শুরু করলো। আমি ধীরে ধীরে আম্মুকে রান্নার কাজে হেল্প করতে শুরু করলাম,,, এবং কিছুদিনেই মুটামুটি রান্না সহ মেয়েদের অনেক কাজই শিখে গেলাম। আসতে আসতে……….
……।