ভোরের কুয়াশা পর্বঃ১৮

0
981

ভোরের_কুয়াশা
#পর্বঃ১৮
#Misty_Meye(মরিয়ম)

তারপর আমি অনেক্ষন কান্নাকাটি করে চোখমুখ মুছে নিচে যাই।কান্না করার ফলে প্রচুর মাথা ব্যথা করছে। নিচে গিয়ে দেখি ওরা সবাই ড্রইং রুমে বসে ভোর আর রিমির Engagement এর আলোচনা করছে।আমি দেখেও না দেখার ভান করে ওখান থেকে চলে আসতে গেলে বিন্দু আমাকে দেখে বলে,,,,

___আরে,,,,ভাবি তুমি ওখানে কই যাও। আমরা সবাই একসাথে ভাইয়ার ইনগেজমেন্টের কথা বলছি।তুমি ও আসো।(বিন্দু)

___হুম,,,,কুয়াশা। তোমাকে কিন্তু বিয়ের সবকিছুতে থাকতে হবে।(রিমি)

ভোর নিচের দিকে তাকিয়ে আছে।

___(তুইই থাক।,,,আমার সংসার নিয়ে আবার আমারে ভাব দেখাস,,,,রেগে মনে মনে)।না আপু আমার আজকে প্রচুর মাথা ব্যথা করছে।তোমরা কথা বলো।আমি আসছি,,,,

বলে আমাদের রুমে গিয়ে আবার কান্নাকাটি করতে করতে ঘুমিয়েই পড়ি।

হঠাৎ আমার কপালে কারো ঠোঁটের উষ্ণ ছোয়া পাই।ভেবেছিলাম ভোর।কিন্তু তাকিয়ে দেখি কেউ নেই।হয়তো মনের ভুল।তখনই ভোর একটা অয়েন্টমেন্ট দিয়ে বলে,,,

___এই নাও।এটা কপালে দাও।ব্যথা ভালো হয়ে যাবে।

___আপনি কি সত্যি আবার বিয়ে করবেন?

___…………

___কি হলো। চুপ করে আছেন যে?

___দাও আমি লাগিয়ে দেই।

___নাহ,,,,,আমার লাগবে না।

___বেশি কথা বলো তুমি।(ভোর আমার হাত থেকে অয়েন্টমেন্ট নিয়ে আমার কপালে লাগিয়ে দিচ্ছে)

___আপনি আমায় ডিভোর্স দিবেন।কিন্তু আমি তা জানি না,,,,,, কেনো?আমার অনুমতি নেওয়ার প্রয়োজন মনে করেননি।তাই না।

___তুমিতো আমার থেকে পালাতে চাও।তাই না।তাহলে এতে তোমার রিয়েক্ট করার কি আছে।তোমারতো খুশি হবার কথা।

___পালাতে চাই।তো কি হইছে।আপনি একবার আমার সাথে কথা অন্তত বলতে পারতেন?

___হুম,,,,পারতাম।কিন্তু তার প্রয়োজন মনে করেনি।কারন তুমিতো রাজি আছো আমাকে ছেড়ে যেতে।আর ছেড়ে যাওয়ার সব থেকে ভালো মাধ্যম হলো ডিভোর্স। তাই না,,,,,

___………….

___কি হলো,,,এবার তুমি চুপ করে আছো যে,,,,,

___আপনি সত্যিই রিমিকে বিয়ে করবেন।আচ্ছা,,,, রিমিকে কেনো আপনি বিয়ে করতে চাইছেন।বলুনতো,,,,,

___কি করবো বলো,,,,তুমিতো আমাকে ভালোইবাসোনা।কিছুদিন পর পরই খালি পালাই পালাই কর।আবার কিছুদিন পর চলে যাবা বলছো।আমি তো আর সারাজীবন একা একা থাকতে পারবোনা।কাউকেতো পাশে প্রয়োজন। তাই ভাবছি রিমিকেই বিয়ে করবো।রিমি যেহেতু আমার বেষ্ট ফ্রেন্ড। তাই ওই আমাকে বুঝবে।কি বলো তুমি।

___বাহঃ খুব ভালো।এতোদিন আমাকে জড়িয়ে ধরাখাইয়েও দিতেন।কতো কেয়ার নিতেন আমার।এখন কই গেলো এগুলা,,,,,সব মিথ্যা ছিলো তাই না।এখন ওই বেস্ট ফ্রেন্ডই সব হয়ে গেলো। বেশ,আপনি করেন বিয়ে ওই কচুর রিমিটিমিকে।আমি কিছুই বলবো না।(মুখ বাকিয়ে)

___তাই,,,,,

___হুম।(অন্যদিকে তাকিয়ে)

___ওকে।

বলে আমার পাশে ঘুমিয়ে পড়ে।

কিছুদিন পর,,,,,

আজকে ভোর আর রিমির এংগেজমেন্টের ও বিয়ের শপিং করতে যায়।আমি যতই বলি বিয়ে আটকাবোনা।কিন্তু অনেক চেষ্টা করেছি বিয়ে আটকানোর। কিন্তু পারিনি।শপিং এ আমি যেতে না চাইলেও আমাকে জোড় করে নিয়ে যায়।ওদের সব কিছু আমাকে দিয়ে পচ্ছন্দ করাচ্ছে।আর আমার ইচ্ছা না থাকা সত্ত্বেও আমি পচ্ছন্দ করে যাচ্ছি।নিজের বরের বিয়ের বাজার নিজেকে পচ্ছন্দ করতে হচ্ছে এই পরিস্থিতির কষ্টটা হয়তো সেই মেয়েটাই বুঝে কতোটা কষ্ট হয়।যেমনটা আমি বুঝছি।আমার খুব ইচ্ছা হয় চলে যাওয়ার কিন্তু কেনো জানিনা যেতে পারিনা।ভোরের প্রতি ঘৃনাও আসে না।আগে চলে যেতে চাইতাম।কিন্তু ভোর যেতে দিতো না।আর এখন চলে যাওয়ার রাস্তা আছে কিন্তু যেতে পারছিনা।

এংগেজমেন্টের দিন,,,,,,

আজকে সারাবাড়ি খুব সুন্দর করে ডেকোরেশন করা হয়েছে।আলো দিয়ে ভরপুর পুরো বাড়ি।সবাই আনন্দ করছে।শুধু আমার মনেই ঝড় উঠছে।কিন্তু এর মাঝেও আমার একটা আনন্দ হচ্ছে।

প্রায়ই সবাই অনুষ্ঠানে চলে আসছে।কিন্তু আমি একজনের আসার অপেক্ষায় আছি।

বিন্দু তা দেখে বলে,,,,

___ভাবি,,,,,, বার বার বাইরে কি দেখো।কেউ কি আসবে তোমার।

___হুম,,,আসবে।

___কে আসবে?

___সেটা বলা যাবে না।আসলে দেখতে পাবে।

___ওহ,,,,,ভাইয়ার আজকে এংগেজমেন্ট ভাবি।

___হুম,জানি তো।

___তুমি কিছু করবা না।(অবাক হয়ে)

___কি করবো বলোতো?

___কি করবা মানে,,,,,তোমার বর,,,,,

___হ্যা। তো কি হয়েছে।তোমার ভাই যেটা ভালো মনে করছে তাই করছে।আমি আর কি বলবো বলোতো?

___কিন্তু ভাবি,,,,,

___কোন কিন্তু না।যাও দেখো আসো। রিমি আপু আর তোমার ভাই রেডি হয়েছে কিনা।

___ওকে।

কিছুক্ষন পর ভোর আর রিমি নিচে নামে।দুইজনকেই সুন্দর লাগছে।কিন্তু আমার কাছে রিমিকে কেমন ভূত্নি ভূত্নি লাগছে।দুইজনই পাশাপাশি দাঁড়িয়ে আছে।

ভোর আমার দিকে অবাক হয়ে তাকিয়ে আছে।কারন আমি ওদের দিকে তাকিয়ে তেমন গুরুত্ব না দিয়ে অন্যদের সাথে কথা বলে হাসছি।

___কি ব্যাপার আমাদের দুইজনকে একসাথে দেখে কুয়াশার কোন রিয়েকশন নেই কেনো?কিছু করছেও না তেমন,,,,,(ভোর মনে মনে)

তখনই আমি যার অপেক্ষায় ছিলাম সে আসছে।আমি তাকে দেখে খুশিতে জরিয়ে ধরি।আর সবাই তা হা করে দেখছে।ভোরের তা দেখে মাথায় রক্ত চড়ে গেছে।ওর চোখ – মুখ লাল করে আছে।ও বেচারা না পারছে কিছু বলতে আর না পারছে কিছু করতে।হাত মুঠো করে রেখেছে শুধু।

আমার ভোরকে দেখে,,,,,,,,,,,,,,,,,,

চলবে…………………..