Dangerous_Girl পর্ব-১০(শেষ পর্ব)

0
1015

#Dangerous_Girl
পর্ব-১০(শেষ পর্ব)
দুষ্ট পাগলীর মিষ্টি বর

ধুর,,,,, বিজয় ট্রেনিং এ যায়। আর ট্রেইনিং এর সময় ফোন ব্যবহার করা যায় না। সাপ্তাহে একদিন কল করে তাও ৪-৫ মিনিটের বেশি কথাই বলা হয় না। আমার জীবনটা ওকে মিস করি আর কান্না করতে করতে শেষ হবার উপক্রম।

: আপনি কাদতেও পারেন?

: তো কান্না করা কি শুধু আপনার নামে লেখা আছে?

: তা নেই

: সারাটা দিন নিজেকে বিভিন্ন কাজে, ক্লাশ, ক্যাম্পাস নিয়ে ব্যস্ত রাখি। তবে রাতে যখন রুমে একা থাকি তখন আর নিজেকে সামলাতে পারিনা। ওকে এতটাই মিস করি, যে কখনো কাউকে ভালোবাসেনি তাকে বলে বুঝাতে পারবো না।

: তো এখন কি অবস্থা।

: বিজয়ের ট্রেনিং আরো ৭ মাস হবে। জানি না এই ৭ মাস কি ভাবে যাবে। তবে ওকে মিস করতে করতে আমি শেষ হয়ে যাবো এটা শিওর।

: ব্যাপার না ধৈর্য্য ধরুন সব ঠিক হয়ে যাবে। দেখতে দেখতে এই ৭ মাসও চলে যাবে।

: কারো অপেক্ষায় কখনো পথ চেয়ে থাকেন নাই, তাই এটা এত সহজ ভাবে বলতে পারলেন।

: যাই হোক ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কি ?

: পড়াশুনা শেষ করা। আর ততদিনে বিজয়ের বিয়ের অনুমতিও হবে। তারপর পারিবারিক ভাবে বিয়ে করা। আর বিয়ের পর আমি একটা চাকুরী নিবো,, বিজয়তো ওর চাকুরী নিয়ে ব্যস্ত থাকবে। তাই টাইম পাসের জন্য হলেও আমি একটা চাকুরী করবো।

: বাহ সুন্দর পরিকল্পনা। বিয়ের সময় দাওয়াত দিয়েন।

: ওকে দিবো। আর আমার জন্য দুআ করিয়েন যেনো আল্লাহ আমাকে এই ৭ মাস ধৈর্য্য ধারন করার সুযোগ দেয়।

: আমার জন্যই বা কে দুআ করে। নিজের চরকায় তেল দিতে পারি না আবার আপনার।

: কি বললেন?

: না মানে বললাম আমার কাছে দুআ না চেয়ে কোন পীর বাবার কাছে দুআ চান,,,,, হয়ত আপনার ধৈর্য্য আল্লাহ বাড়িয়েও দিতে পারে।

: হুহ,,,,, মিনিট প্রায় শেষ না হলে আজ আপনাকে সোজা করে ছেরে দিতাম। যাই হোক ভালো থাকুন আর মাঝে মাঝে আপনাকে বিরক্ত করবো। কিন্তু যদি বিরক্ত হন বা বিরক্তি প্রকাশ করেন তবে ক্যাম্পাসে আপনাকে খুজে বের করে নাক ফাটিয়ে দিবো।

: হুহ,,,, যাই হোক আপনার নামটা যেন কি?

: আমি…… (টুট টুট টুট)

ধুর মনে হয় কলটা কেটে গেলো। তার মানে মেয়ে মিনিট শেষ। আমি কল ব্যাক করতে ধরলাম নাম্বার টাতে, আর তখনি একজন ভদ্র মহিলা বেশ সুন্দর ভাবে বলে উঠলো ,,,, আপনার একাউন্টে যথেষ্ট পরিমাণ টাকা জমা নেই……..

।।।।।(সমাপ্ত)।।।।