Black Rose Last Part (Season-02)

0
4312

#Black_Rose
#Season_02
#The_Dark_Prince_of_Vampire_kingdom♚
#Lamiya_Rahaman_Meghla
#Last_Part

“মন আমার তোর কিনারে হারালো দিন দহরে সে তো আর মানছে নারে এবার ভালোবাসতে আয়।
তোর ছাযার সঙ্গী হবো দু হাতে প্রেম কুড়াবো আমাকে চুপটি করে মনের কথা বলতে আয়,
আমি যেতে পারি হেসেই পেরতে পারি অনেক অনেক অতল৷
তোর কথা উঠে আমার কপালে জুট দারুণ খুশির দল,
কে তুই বল!
কে তুই বল!”
(বাকি টুকু নিজ দায়িত্ব শুনে নিও)

আদ্রিয়ান গান গাইছে আদ্রিজাকে ঘিরে।
আর ছোট থেকে কাটানো মিষ্টি মুহূর্ত গুলো প্রজেক্টরে আসছে৷
আদ্রিজা অবাক হয়ে তাকিয়ে আছে৷
পুরোনো সব কথা মনে করিয়ে দিচ্ছে আজ৷
অসম্ভব সুন্দর সেই দিন গুলো ছিলো৷
ছোট থেকে আদ্রিজা আদ্রিয়ান একজন আরেকজনকে ছাড়া থাকতে পারতো না৷
আজও তার বেতিক্রম কিছু না৷
মেঘ আজ আদ্রিজার মতো করে সেজেছে৷
আজ কোন বিশেষ দিন নয়৷ কিন্তু মেয়ের মুখের একটু হাসির জন্য পুরো বাড়িটাকে উৎসবের পরিবেশ করে তুলেছে৷

গান শেষ হতে আদ্রিয়ান আদ্রিজার সামনে হাঁটু গেঁড়ে বসে,
— আমি তোর জন্য মরতে পারি ১০০ বার৷
জীবনের সব কিছু ত্যাগ দিতে পারি এক কথায়৷
তুই বললে এই মুহুর্তে নিজেকে বিসর্জন দিতে পারি তোর পায়ের তলে৷
আমার সব খুশি আজ থেকে তোর।
তোর সব খুশির খেয়াল রাখার দায়িত্ব আমার৷
আমি জনি আমি সেই কাজ করেছি যা আমার কখনো করা উচিৎ ছিলো না৷
তুই কি মাফ করবি না আমাকে।
ফিরিয়ে নিবি না কাছে৷
আমি তোকে আমার জীবনের থেকে বেশি ভালোবাসি৷
সত্যি বলছি তোকে দেওয়া সব কষ্টের শেষ করতে চাই৷
ভালোবাসার নতুন একটা জগৎ গড়তে চাই৷
হবি আমার পথ চলার সাথী।
–?।
–আদ্রিজা সরি মাম্মাম। (মেঘ)
–এই যে দেখো কান ধরছি মাম্মাম (আমান)
মেঘ, আমান,আদ্রিয়ান এক সাথে কান ধরে
তা দেখে আদ্রিজা খিলখিল করে হেসে দেয়৷
–থাক থাক আর কান ধরতে হবে না৷
i love u all.
আদ্রিজা গিয়ে মেঘ আর আমানকে জড়িয়ে ধরে।
–আমি এই গুরুত্বপূর্ণ সভায় আর একটা গুরুত্বপূর্ণ কথা বলতে চাই৷ (আমান)
–বলো বাবাই৷
–তোমার বাবাই এর আসল পরিচয় জানাতে চলেছো আজ৷
–আসল পরিচয়৷
–হ্য আসল পরিচয়৷
আমি আমান খান #The_king_of_vampire_kingdom.
তোমার মাম্মাম হলো #Queen
–vampire!
–হুম তোমরা আমার ছেলে মেয়ে আমার এই পরিচয় আজ না জানলে কাল জানবে৷
আর সময় এসে গেছে আমাকে আমার রাজ্য সামলাতে হবে এ বাড়ির দায়িত্ব তোমাদের দিয়ে আমি আর মেঘ আমাদের রাজ্যে যাবো।
–মগের মুল্লুক নাকি আমি যেতে দিবো না৷ (আদ্রিজা)
–আরে পাগল এক দম চলে যাবো নাকি বুঝতে হয় না আমি এখানে এই ৪৫ বছর জবত আছি৷
তোমার মায়ের সাথে সংসার আমার ২৩ বছর।
এখন জদি ওদের একটু সময় না দি তাহলে অন্যায় হবে ওদের সাথে৷
–বাবাই মাম্মাম ?
–আচ্ছা আদ্রিজা এটা জদি তোমার শ্বশুর বাড়ি হতো তাহলে কি আমরা থাকতে পারতাম মেয়েদের একটা সময় বাবা মা ছাড়া থাকতে হয়৷
তদের কথা চিন্তা করো এক বার আমি এতো গুলো বছর এখানে কিন্তু এখন আর না।
–তোমরা আসবে তো৷
–আমি আমার মেয়েকে রেখে থাকতে পারি৷
(মেঘ)
–মাম্মাম
আদ্রিজা কেঁদে দেয়৷
–আরে তোবা ওরে বুঝা। (মেঘ)
–আদ্রিজা৷
–না মনি আমি কিছু শুনবো না৷
–আরে৷
–৭ দিন পর পর দু’দিন এসে থাকবা কথা দেও৷
–আচ্ছা এমন হলে আদ্রিজা বুড়ির কান্না থামবে৷ (আমান)
–হুম৷
–ওকে ঠিক আছে তাহলে তাই হবে৷
–কথা দেও বাবাই৷
–কথ দিলাম৷
–?
–তাহলে এবার আসি৷
–টাটা মাম্মাম৷
–তোমাদের নতুন জীবনের জন্য শুভকামনা রইলো৷ (আহম্মেদ)
–ধন্যবাদ ভাইয়া৷
–মেঘ আপুরে ভুলে যাস না কিন্তু ।
–কি যে বলো৷
আমান আর মেঘ চলে গেল৷
–আদ্রিজা৷
–মনি৷
–এদিকে আয় আমার সাথে।
–কই যাবো৷
–আয় কোথায়ও একটা গেলেই হলো৷
আদ্রিয়ান তুমিও যাও৷
–ওকে মাম্মাম৷
মনি আমাকে নিয়ে তার রুমে এলো৷
একটা লাল বেনারসী টাইপ সাড়ি পরিয়ে সাজিয়ে দিলো৷
–কি হচ্ছে মানি৷
–কিছু একটা হলেই হলো।
মনি আমাকে সাজিয়ে ভাইয়ার ঘরে বসিয়ে দিলো৷
সুন্দর করে সাজানো হইছে ঘরটা৷
–আল্লাহ এগুলা কি হচ্ছে৷
–কিছু একটা হলেই হলো আমার সোনা মামোনি৷


vampire রাজ্যে,
–আমান এগুলা কি।
–তোমার জন্য।
–আমার জন্য।
পুরো রুমটাকে সুন্দর করে সাজানো হইছে।
–নতুন বাসর৷
মেঘের ঘাড়ে থুঁতনি ঠেকিয়ে৷
–নতুন বাসর মেয়ে আছে আমাদের ২১ বছরের। কিছু দিন পর তার বাবু হবে আর এখন তুমি৷
–তো কি হইছে মেঘ তো সেই আগের মতো আছে আমান মেঘকে আগের মতোই ভালোবাসে৷
–সত্যি৷
–হুম৷ আাকাশ নামের বিপদটাকে কাটিয়ে আজ কতো বছর পর আমরা শান্তির নিশ্বাস নিলাম৷
–আদ্রকে কি করেছো।
–মেরে দিছি৷
–হ্যা৷
–এসব বাদ দিয়ে এদিকে এসো।
ভালোবাসার নতুন এক দুনিয়া৷


দরজা খুলার শব্দ পেয়ে বুকের মধ্যে ধুকপুক শব্দ হতে শুরু করলো৷
আদ্রিয়ান ভাইয়ার পর্ফিউম এর স্মেল আমাকে জানান দিচ্ছে এটা আদ্রিয়ান ভাইয়া৷
–আদ্রিজা
–জি ভাইয়া৷
–এই মেয়ে এই৷
ওনার ধমক শুনে কেঁপে উঠলাম৷
–এখনো ভাইয়া বলিস কেন।
–আচ্ছা তো কি বলবো৷
–আমি দেখাই কি বলবি৷
–এই আমার
–কি তোর
এক দম কাছে চলে এসেছে আদ্রিয়ান৷
–দুরে
–না দুরে না আরো কাছে,।
(বাকি টুক শুনতে নেই?)
_______বইয়ের গল্পের সমাপ্তি _______


–মেঘ এই মেঘ৷
–এতো যোরে চিল্লাচ্ছো কেন৷
–একটা বই পড়লাম৷
–কি বই৷
-#The_Dark_Prince_of_vampire_kingdom.
–vampire গল্প৷
–হুম৷
–কি ছিলো তাতে
–যা ছিলো তা তো৷
–কি ছিলো আাকাশ।
–আমি ভিলেন তুই নাইকা আর অন্য একটা ছেলে নায়ক। তোর একটা মেয়ে ছিলো তার গল্পও ছিলো ওখানে।
–ও আল্লাহ তাই৷
–হুম৷
–কি মজা রে।
–মজা না জদি সত্যি এমন হয়৷
–হ্যা তো কি তুই আমার বেস্ট ফ্রেন্ড না হয় একটু সয়তানি করলি।
–মেঘ (কবে যে তোকে বলবো ভালোবাসি আল্লাহই জানে মনে, মনে)
–আচ্ছা নায়ক এর নাম৷
–আমান খান৷
–আমান খান নামটা সুন্দর।
–হ থাক তুই আমি গেলাম৷
আাকাশ চলে গেল৷
এদিকে মেঘের মনের মাঝে নামটা গেথে গেছে।
“আমান খান”।
___________★★★★★★__________
(শেষের টুকু নিয়ে অনেকের অভিযোগ হতে পারে তদের কে বলছি সিজেন-৩ আসবে?)