Secret Lover Part-07

0
740

Story – Secret Lover

Writer – Tafsirah Islam

Part – 7

রুহান : ওকে.. তাহলে মিস. তিথি
না না মিস. চৌধুরী পানিশমেন্ট এর জন্য রেডি হয়ে যান
( ডেভিল মার্কা হাসি দিয়ে ?)
রুহান তিথির দিকে এগোচ্ছে আর তিথি ভয়ে শেষ

তিথি : দেখুন স্যার এটা আমার অফিস এখানে আপনার কোনো হুকুম চলবে না

রুহান : ওহ রিয়েলি মিস. তিথি…
তাহলে প্রমাণ হয়ে যাক আমার কোনো হুকুম চলবে কিনা ??
( তিথির অনেকটা কাছে গিয়ে)

এমন সময়েই কেউ দরজা নক করে

ম্যানেজার : may i come in sir?
রুহান : ? কাবাবে হাড্ডি হওয়া ছাড়া মনে হয় এদের কোনো কাজ নেই ( বিরবির করে)

তিথির থেকে একটু দূরে সরে

রুহান : come in
ম্যানেজার : স্যার আমাদের নতুন ডিলটা ফাইনাল হয়ে গেছে
আর এইযে ডিলটার ফাইল

ফাইল দিয়ে ম্যানেজার দেখেন তিথি তার দিকে বড় বড় চোখ করে একবার ম্যানেজার এর দিকে আবার রুহানের দিকে তাকাচ্ছে..

তিথির মাথায় কিছুই ঢুকছে না..
কি হচ্ছে সব মাথার উপর দিয়ে যাচ্ছে..

রুহান : ওকে আপনি এবার আসুন ( ম্যানেজারকে)

তিথি :?? সব মাথার উপর দিয়া গেল ( মনে মনে)
রুহান : don’t worry এখনই মাথায় সব ঢুকে যাবে ?

রুহান তিথির দিকে এগোচ্ছে আর তিথি ভয়ে পেছাচ্ছে..
তিথি পেছাতে পেছাতে চেয়ারে পা লেগে যায় আর তিথি চেয়ারে বসে পড়ে…

রুহান তিথির দিকে অনেকটা ঝুকে..
রুহান : তো মিস. তিথি আপনি কি যেন বলছিলেন
তিথি : ক..ক.. কই স্যার কিছু না স্যার..
রুহান : ও হ্যাঁ আপনিতো মিস.তিথি চৌধুরী, তা মিস. তিথি চৌধুরী ভয় পাচ্ছে তাও আবার আমার মতো সাধারণ মানুষকে ?
কি হলো চুপ করে আছেন কেন.. কিছু তো বলুন..
তিথি : ( এই রে মনে হয় নিজের পায়ে নিজেই কুড়াল মারলাম)
স্যার আপনি তো কতো ভালো একটা মানুষ, কতো দয়ালু আপনি, আপনার মতো মানুষ হয় নাকি ?

রুহান তিথির মুখটা উঁচু করে
রুহান : এ কি মিস. চৌধুরী এতো ভয় পাচ্ছে ( তিথির কানের কাছে মুখ নিয়ে)

তিথি আবারও মাথা নিচু করে নেয়
রুহান আবার তিথির কানের কাছে মুখ নিয়ে বলে
রুহান : তা মিস. তিথি আপনার কথা গুলো সত্য করে দিই..
আই মিন মিস. তিথি থেকে মিসেস. তিথি চৌধুরী ?কি বলেন

তিথি : আল্লাহ মাটি ফাঁক করো আমি ঢুকে যাই ( মনে মনে)

রুহান একটু সরতেই তিথি উঠে এক দৌড়ে নিজের কেভিনে

রুহান তিথির কান্ডে হেসে লুটোপুটি খাচ্ছে ????

সকালে তিথির সাথে কার পরিচয় হয়নি..
তাই তিথি আসতেই সবাই তিথির সাথে পরিচিত হওয়া শুরু করে

আর এই সবকিছুই রুহান সিসিটিভি ক্যামেরায় দেখছে

তিথি সবার সাথে পরিচিত হচ্ছে
তিথি সবার সাথেই হেসে হেসে কথা বলছে

শিহাব : হাই আ’ম শিহাব
তিথি : আ’ম তিথি
শিহাব : নাইস টু মিট ইউ

এতক্ষণ ঠিক থাকলেও এবার রুহান এর রাগ উঠে যায় শিহাব কে দেখে

শিহাবকে রুহান এর মোটেও সুবিধার মনে হয় না..
আর তিথির সাথে গায়ে পড়ে কথা বলা মোটেও পছন্দ হয়নি রুহানের

সাথে সাথেই রুহান তিথিকে ডেকে পাঠায়

তিথি : may…

তিথিকে বলতে না দিয়েই
রুহান : come in
মিস.তিথি আপনার পরিচয় পর্ব শেষ হলে এবার দয়া করে কাজ শুরু করুন
( অনেকটা রাগী গলায় বলল)
তিথি : হুহ প্রথম দিনই কাজ কাজ শুরু করে দিছে ? (বিরবির করে বললো)

রুহান : মিস. তিথি কি ভাবছেন এতো…

তিথি : ক ক কই কিছু না স্যার ?

রুহান : ওকে… এই নিন এই দুটো ফাইল দেখুন… আর হ্যাঁ কমপ্লিট করে দিয়ে তারপর যাবেন…

তিথি : ??..স্যার আজকেই…

রুহান : কিছু বললেন

তিথি : ন..ন..না স্যার যাচ্ছি…

রুহান : গুড

তিথি ফাইল নিয়ে নিজের কেভিনে চলে আসে…
আর রুহান এর চোদ্দগুষ্টি উদ্ধার করছে ??

তিথি : বজ্জাত কোথাকার.. প্রথম দিনই এতো কাজ কেউ দেয় ??

ওদিকে রুহান নিজের কেভিনে বসে ল্যাপটপ অন করে তিথির কান্ড দেখছে.. আর হাসছে..??
কিন্তু সাথে সাথেই রুহানের মুখটা কালো হয়ে গেল

তিথি : উফ.. কিছুই বুঝতেছিনা..
স্যার এর কাছে যাবো ?

শিহাব : may i come in মিস.তিথি?
তিথি : জি আসুন..
শিহাব : any problem?
তিথি : no ☺
শিহাব : কোনো সমস্যা থাকলে বলতে পারেন আমি help করার চেষ্টা করবো
তিথি : thanks. but এখন একটা ফাইল বুঝতে একটু সমস্যা হচ্ছে স্যার এর কাছে যেতে হবে..
শিহাব : ওহ..আপনি চাইলে আমি সাহায্য করতে পারি
তিথি : oh sure…
শিহাব তিথিকে ফাইল বোঝাচ্ছে

এদিকে রুহান দেখছে আর রাগে ফুসছে..

এই শিহাব এর তো আজ খবর আছে ??
রুহান শিহাবকে কেভিনে ডেকে

রুহান : মি. শিহাব কালকের ভিতর এই ফাইল গুলো কমপ্লিট করে নিয়ে আসবেন ( একগাদা ফাইল দিয়ে)
শিহাব : স্যার…
রুহান : ? কি হলো
শিহাব : কিছু না স্যার
রুহান : আপনি এখন আসতে পারেন

শিহাব বেচারা একগাদা ফাইল নিয়ে নিজের কেভিন গিয়ে কাজ শুরু করে দিছে

রুহান : মিস. তিথি আপনার শাস্তি গুলো জমা রইলো ☺

তিথি : উফফ এটা বুঝি না…স্যার এর কাছে যাই…

তিথি : may i come in sir?
রুহান : come in
তিথি : স্যার এই ফাইলটা বুঝতে একটু সমস্যা হচ্ছে
রুহান : তো আমাকে বলছেন কেন? আপনার ফ্রেন্ড এর কাছে যান
তিথি : আমার ফ্রেন্ড ?

রুহান : হুম আপনার ফ্রেন্ড.. শিহাব এর সাথে তো আপনার একদিনে ভালোই বন্ধুত্ব হয়েছে তার কাছেই যান..সে তো আপনার সব সমস্যা সমাধান করতে পারে.. am i right?

তিথির এবার রাগ উঠে যায়..

তিথি : স্যার অফিসে প্রথম দিন তো সবাই পরিচিত হয়..
আর তাছাড়া আমি কার সাথে বন্ধুত্ব করবো না করবো সেটা তো আমরা পারসোনাল ব্যাপার

তিথির কথায় তো রুহান রেগেমেগে আগুন ??
রুহান : কি বললেন..
আবার বলুন ( চেয়ার ছেড়ে উঠে)

এবার তিথি রুহানের দিকে তাকাতেই দেখে রুহানের ফেস রাগে লাল হয়ে গেছে..
তিথি এবার নিজেই ভয় পেয়ে যায়..

তিথি : ন..ন না স্যার ওনার সাথে আমার কোনো বন্ধুত্ব নেই..উনি তো শুধু..

তিথিকে বলতে না দিয়েই..
রুহান : আজকের পর যেন শিহাবকে আপনার সাথে না দেখি

তিথি :…………..
তিথির এবার খুব বেশি রাগ হচ্ছে

রুহান : কি হলো চুপ করে আছেন কেন..
আচ্ছা কি দরকার বলুন

তিথি কিছু না বলেই চলে গেলো..

রুহান : বেশি বলে ফেললাম নাকি..
রুহান ল্যাপটপ অন করে দেখে তিথি রাগে লাল হয়ে গেছে